গায়ে আগুন দিয়ে আত্মহত্যা : স্ত্রীসহ হেনোলাক্সের আমিন রিমান্ডে
গায়ে আগুন দিয়ে আত্মহত্যা : স্ত্রীসহ হেনোলাক্সের আমিন রিমান্ডে

নুরুল আমিন ও তার স্ত্রী ফাতেমা আমিন

গায়ে আগুন দিয়ে আত্মহত্যা : স্ত্রীসহ হেনোলাক্সের আমিন রিমান্ডে

অনলাইন ডেস্ক

রাজধানী ঢাকার জাতীয় প্রেসক্লাব সামনে নিজের গায়ে আগুন দেওয়া ঠিকাদার গাজী আনিসের মৃত্যুর ঘটনায় আমিন ম্যানুফ্যাকচারিং কোম্পানির (হেনোলাক্স গ্রুপ) ব্যবস্থাপনা পরিচালক নুরুল আমিন ও তার স্ত্রী ফাতেমা আমিনের দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

বুধবার (০৬ জুলাই) ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট সৈয়দ মোস্তফা রেজা নূর এই রিমান্ড মঞ্জুর করেন। মঙ্গলবার রাতে রাজধানীর উত্তরা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)।

বুধবার তাদের আদালতে হাজির করে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা শাহবাগ থানার উপপরিদর্শক গোলাম হোসেন খান ৭ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন।

অপরদিকে আসামিপক্ষে আইনজীবী রিমান্ড বাতিল চেয়ে জামিন আবেদন করেন। শুনানি শেষে বিচারক দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে শাহবাগ থানার সাধারণ নিবন্ধন কর্মকর্তা পুলিশের উপ-পরিদর্শক নিজাম উদ্দিন ফকির এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

গত ৪ জুলাই বিকেলে প্রেসক্লাবের ফটকের ভেতরে খোলা স্থানে আনিস নিজের গায়ে আগুন দেন। পরে গুরুতর অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে নিয়ে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হলে তাকে হাসপাতালের আইসিইউতে লাইফ সাপোর্টে নেওয়া হয়। দেহের ৮০ শতাংশ পুড়ে যাওয়া আনিস চিকিৎসাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার ভোরে মারা যান।

দুই মাস আগে একটি কোম্পানির কাছে ১ কোটি ২৬ লাখ টাকা পাওনার দাবি নিয়ে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে একটি মানববন্ধন করেছিলেন আনিস।

গত ৫ জুলাই দুপুরে আমিন ম্যানুফ্যাকচারিং কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক নুরুল আমিন ও ফাতেমা আমিনের বিরুদ্ধে আনিসের বড় ভাই নজরুল ইসলাম বাদী হয়ে আত্মহত্যার প্ররোচনার অভিযোগে শাহবাগ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

৫০ বছর বয়সী আনিসের গ্রামের বাড়ি কুষ্টিয়ায়। তিনি ঠিকাদারি ব্যবসা করতেন। এক সময় কুষ্টিয়া জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ছিলেন তিনি।

news24bd.tv/কামরুল