'দক্ষিণাঞ্চল পুনরুদ্ধারে ইউক্রেনের মিলিয়ন শক্তিশালী সেনাবাহিনী রয়েছে'
'দক্ষিণাঞ্চল পুনরুদ্ধারে ইউক্রেনের মিলিয়ন শক্তিশালী সেনাবাহিনী রয়েছে'

সংগৃহীত ছবি

'দক্ষিণাঞ্চল পুনরুদ্ধারে ইউক্রেনের মিলিয়ন শক্তিশালী সেনাবাহিনী রয়েছে'

রিমু

ইউক্রেনে সামরিক অভিযান চালাচ্ছে বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম পরাশক্তি রাশিয়া। গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ভোর থেকে শুরু হয় এই অভিযান। চলমান যুদ্ধে রুশ সৈন্যরা পূর্ব এবং দক্ষিণ ইউক্রেনের বেশ কতগুলো গুরুত্বপূর্ণ শহরের নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে। ইউক্রেনের প্রতিরক্ষামন্ত্রী ওলেকসি রেজনিকভ বলেছেন, দক্ষিণাঞ্চল পুনরুদ্ধার করতে মিলিয়ন শক্তিশালী সেনাবাহিনী রয়েছে ইউক্রেনের।

গতকাল রোববার দ্য টাইমসকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে প্রতিরক্ষামন্ত্রী দাবি করেছেন, ইউক্রেন তার দক্ষিণাঞ্চল পুনরুদ্ধারের জন্য প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কির নির্দেশে এক মিলিয়ন সৈন্য সংগ্রহ করেছে। খবর আরটির

প্রতিরক্ষামন্ত্রী বলেন, 'আমরা বুঝি, রাজনৈতিকভাবে এটা আমাদের দেশের জন্য খুবই প্রয়োজনীয়। প্রেসিডেন্ট পরিকল্পনা প্রণয়নের জন্য সর্বোচ্চ সামরিক প্রধানকে নির্দেশ দিয়েছেন। '

তিনি বলেন, আমাদের সশস্ত্র বাহিনীতে আছে প্রায় ৭০ লাখ এবং ন্যাশনাল গার্ড, পুলিশ, বর্ডার গার্ডসহ আমরা প্রায় এক মিলিয়ন শক্তিশালী সৈন্য আছে।

ইউক্রেনকে সাহায্য করার জন্য ব্রিটিশ প্রচেষ্টার প্রশংসা করেন মন্ত্রী। বিশেষ করে ব্রিটেনের প্রতিরক্ষা সচিব বেন ওয়ালেসের প্রশংসা করেন তিনি। তার মতে, ন্যাটো-মান ১৫৫ মিমি কামান, নির্দেশিত একাধিক লঞ্চ রকেট সিস্টেম এবং উচ্চ প্রযুক্তিতে সোভিয়েত সরঞ্জাম সরবরাহ থেকে দৃষ্টিভঙ্গি পরিবর্তন করতে সহায়তা করার মূল চাবিকাঠি ছিলেন।

মন্ত্রী ব্যাখ্যা করে বলেন, রাশিয়ান আর্টিলারি গোলাগুলির মুখে ডোনবাস অঞ্চলে ভারী ক্ষয়ক্ষতি পূরণ করবে। প্রেসিডেন্ট জেলেনস্কি এর আগে বলেছিলেন যে ইউক্রেন এই অঞ্চলে প্রতিদিন প্রায় ২০০ জন লোককে হারাচ্ছে।

রেজনিকভ অন্যান্য মিত্রদেরও উল্লেখ করে দাবি করেছেন, একটি 'ক্রেমলিন-বিরোধী জোটের জন্ম হয়েছে। '

তিনি বলেন, 'লন্ডন এবং ওয়াশিংটন ডিসি এবং অন্যান্যরা আমাদের মধ্যে বিনিয়োগ করেছে। তবে শুধুমাত্র অর্থ নয়, তাদের জনগণের প্রত্যাশা যা আমাদের ক্রেমলিনকে হারাতে হবে। আমাদের একসাথে এই যুদ্ধ জিততে হবে'।

তিনি আরও বলেন, রাশিয়ান প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের পুরানো জোটগুলিও ভেঙে গেছে, রেজনিক কাজাখস্তানের দিকে ইঙ্গিত করে যুক্তি দিয়েছিলেন যে সম্প্রতি রাষ্ট্রপতি কাসিম-জোমার্ট টোকায়েভ প্রকাশ্যে লুগানস্ক এবং ডোনেস্ক পিপলস রিপাবলিককে সার্বভৌম দেশ হিসাবে স্বীকৃতি দিতে অস্বীকার করেছিলেন।

প্রতিরক্ষামন্ত্রী বলেন, আমি নিশ্চিত যে আগামী কয়েক বছরে আমরা রাশিয়ার ভূখণ্ডে সার্বভৌমত্বের আহ্বানের মিছিল দেখতে পাব। রাশিয়ান ফেডারেশন নিশ্চিহ্ন হবে।

news24bd.tv/রিমু

 

সম্পর্কিত খবর