প্রেসিডেন্ট প্রাসাদে নিজেদের বিক্ষোভের লাইভ দেখছেন বিক্ষোভকারীরা
প্রেসিডেন্ট প্রাসাদে নিজেদের বিক্ষোভের লাইভ দেখছেন বিক্ষোভকারীরা

সংগৃহীত ছবি

প্রেসিডেন্ট প্রাসাদে নিজেদের বিক্ষোভের লাইভ দেখছেন বিক্ষোভকারীরা

অনলাইন ডেস্ক

কলম্বোতে প্রেসিডেন্ট ও প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনের প্রত্যেকটি প্রান্ত এবং কোণ দখলে নিয়েছেন লঙ্কান বিক্ষোভকারীরা। জিমে ব্যায়াম, প্রেসিডেন্ট পুলে সাঁতার কাটা, রান্নাঘরে খাওয়া, শয়নকক্ষে বিশ্রাম নেওয়ার ভিডিও এবং ছবি ভাইরাল হওয়ার পর এবার প্রেসিডেন্ট প্রাসাদের টেলিভিশনে নিজেদের বিক্ষোভের লাইভ দেখা বিক্ষোভকারীদের আরেকটি ছবি অনলাইনে ছড়িয়েছে।

‘এনিথিং ইজ পসিবল’ নামের একটি টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে শেয়ার করা ছবিতে দেখা যাচ্ছে, একদল বিক্ষোভকারী প্রেসিডেন্ট প্রাসাদের একটি কক্ষের মেঝেতে শুয়ে টেলিভিশনে লাইভে নিজেদের বিক্ষোভ দেখছেন। তারা টেলিভিশনে ‘ব্রেকিং নিউজ’ও দেখছেন।

টুইটের ক্যাপশনে লেখা রয়েছে, প্রেসিডেন্ট প্রাসাদে শ্রীলঙ্কার বিক্ষোভকারীরা তাদের বিক্ষোভ দেখছেন। কয়েক মাসের তুলনামূলক শান্তিপূর্ণ আন্দোলনের চূড়ান্ত পরিণতিতে এসব দৃশ্য এখন দেখা যাচ্ছে শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্ট এবং প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনে। ১৯৪৮ সালে স্বাধীনতা লাভের পর গত সাত দশকে প্রথমবারের মতো ভয়াবহ বৈদেশিক মুদ্রার ঘাটতির মুখোমুখি হয়েছে। দেশটিতে দীর্ঘস্থায়ী বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্নতার পাশাপাশি তীব্র খাদ্য ও জ্বালানি সংকট দেখা দিয়েছে।

তীব্র অর্থনৈতিক সংকটের জেরে গত শনিবার সারা দেশের হাজার হাজার মানুষ রাজধানী কলম্বোতে জড়ো হন। পরে বিক্ষুব্ধ জনতা রাজাপাকসের সরকারি বাসভবনে ঢুকে পড়েন। এর আগে প্রেসিডেন্ট ও প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনের সামনে পুলিশ ও অন্যান্য আইন-শৃঙ্খলাবাহিনীর সাথে বিক্ষোভকারীদের সংঘর্ষ হয়।

অনলাইন ছড়িয়ে পড়া ভিডিও ও ছবিতে দেখা যায়, লোকজন প্রেসিডেন্ট প্রাসাদের সুইমিং পুলে সাঁতার কাটছেন। এমনকি প্রধানমন্ত্রী রনিল বিক্রমাসিংহের বিছানায় রেসলিংয়ে অংশ নেন বিক্ষোভকারীরা।

বিক্ষোভকারীদের হানার আগেই বাসভবন ছেড়ে পালিয়েছেন প্রেসিডেন্ট রাজাপাকসে। বর্তমানে তিনি দেশটির নৌবাহিনীর একটি জাহাজে করে সমুদ্রে ভাসছেন বলে খবর দিয়েছে বিবিসি।

এদিকে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় বলেছে, আগামী ১৩ জুলাই পদত্যাগ করবেন প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া রাজাপাকসে। প্রধানমন্ত্রী রনিল বিক্রমাসিংহেও বলেছেন, তিনি পদত্যাগ করতে এবং সর্বদলীয় সরকার গঠনের পথ তৈরি করে দিতে প্রস্তুত। অন্যদিকে, শ্রীলঙ্কার সেনাপ্রধান জেনারেল শাভেন্দ্র সিলভা শান্তিশৃঙ্খলা বজায় রাখার জন্য জনগণের সহায়তা চেয়েছেন।  

news24bd.tv/আলী