দাফনের ৫২ দিন পর কবর থেকে বৃদ্ধার মরদেহ উত্তোলন
দাফনের ৫২ দিন পর কবর থেকে বৃদ্ধার মরদেহ উত্তোলন

দাফনের ৫২ দিন পর কবর থেকে বৃদ্ধার মরদেহ উত্তোলন

দাফনের ৫২ দিন পর কবর থেকে বৃদ্ধার মরদেহ উত্তোলন

বেলাল রিজভী, মাদারীপুর

মাদারীপুরের কালকিনিতে দাফনের ৫২ দিন পর ময়নাতদন্তের জন্য হাজেরা বেগম (৬২) নামে এক বৃদ্ধার মরদেহ কবর থেকে উত্তোলন করা হয়েছে।

আজ শনিবার দুপুর সাড়ে ১২টায় নিজবাড়ির কবরস্থান থেকে ম্যাজিস্ট্রেট ইমরান হোসেন ও খাসেরহাট পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের আইসি মো. এমদাত হোসেনের উপস্থিতিতে লাশ তুলে সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করা হয়। পরে ময়না তদন্তের জন্য মাদারীপুর সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়।

নিহত বৃদ্ধা উপজেলার লক্ষ্মীপুর ইউপির দাঁতপুর গ্রামের খলিল হাওলাদারের স্ত্রী।

এলাকা ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, হাজেরা বেগমের মেয়ে রিনা বেগম বাদী হয়ে একেই এলাকার হাসেম খাসহ ৫ জনের নামে চলতি বছরের ২৭ জুন মাদারীপুরে আদালতে মামলা দায়ের করেন। পরে আদালতের নির্দেশে কবর থেকে লাশ তোলার হয় ময়না তদন্তরের জন্য। একজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও মেডিকেল অফিসারের উপস্থিতিতে লাশ উত্তলন করা হয়।

মামলার বাদী নিহতের মেয়ে রিনা বেগম বলেন, আমার মাকে হত্যা করা হয়েছে।

তাই আমার মামলায় আদালতের নির্দেশে ময়না তদন্তের জন্য লাশ উত্তোলন করা হয়েছে।

মামলার আসামি হাসেম খা বলেন, রিনার মা মারা গেছে তারপর তাকে দাফন করা হয়েছে। কিন্তু আমাদের ফাঁসানোর জন্য তার লাশ দাফনের পরে মামলা করে অন্যায়ভাবে আমাদের আসামি করা হয়েছে। তাকে যদি হত্যা করা হত তাহলে সেই সময় রিনা মামলা কেন করলো না। কিন্তু দাফনের বেশ কিছুদিন পরে মামলা করা হলো। এটা শুধু আমাদের হয়রানি করার জন্য করা হয়েছে।

এ ব্যাপার খাশেরহাট তদন্ত কেন্দ্রের আইসি মো. এমদাত হোসেন লাশ উত্তোলনের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, নিহতের মেয়ের অভিযোগের ভিত্তিতে আদালতের নির্দেশে লাশ উত্তোলন করা হয়েছে।

news24bd.tv রিমু