মধুমতি নদীতে নিখোঁজের দু’দিন পর লিটনের মরদেহ উদ্ধার 
মধুমতি নদীতে নিখোঁজের দু’দিন পর লিটনের মরদেহ উদ্ধার 

মধুমতি নদীতে নিখোঁজের দু’দিন পর লিটনের মরদেহ উদ্ধার 

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি :

গোপালগঞ্জের কাশিয়ানীতে মধুমতি নদীতে গোসল করতে নেমে নিখোঁজের দু’দিন পর আমির হোসন লিটন (৪৫) নামে এক ব্যক্তির মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। আজ শনিবার সকালে গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার ঘাঘা-ধলইতলা এলাকার মধুমতি নদী থেকে ওই ব্যক্তির মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

গোপালগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের সি‌নিয়র স্টেশন অ‌ফিসার এস এম আরিফুল হক জানান, গত কয়েকদিন আগে স্ত্রী ও সন্তানদের নিয়ে কলসি ফুকরা গ্রামে বেড়াতে আসেন আমির হোসন লিটন।  

গত বৃহস্পতিবার দুপুরে বাড়ির পাশে মধুমতি নদীতে গোসল করতে নেমে নিখোঁজ হন তিনি।

পরে গোপালগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস ও খুলনা ফায়ার সার্ভিসের ৫ সদস্যের একটি ডুবুরি দল নদীতে তল্লাশি করে তার কোন সন্ধান পাননি।

পরে আজ শনিবার সকালে সদর উপজেলার ঘাঘা-ধলইতলা এলাকার মধুমতি নদীতে আমির হোসনের মরদেহ ভাসতে দেখে এলাকাবাসী। পরে পরিবারের লোকজন খবর পেয়ে মরদেহ উদ্ধার করে বাড়িতে নিয়ে আসে। এ ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেয়ে এসেছে।

নিখোঁজ আমির হোসন লিটন রাজধানী ঢাকার কদমতলি থানার রায়েরবাগ এলাকার মৃত আব্দুল খালেকের ছেলে। তি‌নি ঢাকার এক‌টি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করতেন।

news24bd.tv/কামরুল

সম্পর্কিত খবর