বান্ধবীর বাড়িতে বেড়াতে গিয়ে গণধর্ষণের শিকার 
বান্ধবীর বাড়িতে বেড়াতে গিয়ে গণধর্ষণের শিকার 

বান্ধবীর বাড়িতে বেড়াতে গিয়ে গণধর্ষণের শিকার 

অনলাইন ডেস্ক

বান্ধবীর বাড়িতে বেড়াতে এসে গণধর্ষণের শিকার হয়েছেন স্বামী পরিত্যক্তা এক সন্তানের জননী। শুক্রবার রাতে নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লার পাগলা বৈরাগি বাড়ী এলাকার এ ঘটনায় ওই গৃহবধূ তিনজনের নাম উল্লেখ করে শনিবার ফতুল্লা মডেল থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

আসামিরা হলেন- ফতুল্লা মডেল থানার পাগলা বৈরাগী বাড়ী এলাকার মৃত নগেন মন্ডলের ছেলে অজয় মন্ডল (২৬), একই এলাকার কসাইয়ের ছেলে শাওন (২৭) ও ইদ্রিস আলীর ছেলে রনি (১৮)।

মামলায় উল্লেখ করা হয়, বাদীর বাড়ি ঢাকা জেলার দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার নাজিরবাগ এলাকায়।

সে একজন তালাকপ্রাপ্ত। তার ঘরে এক বছরের ছেলে সন্তান রয়েছে। তিন মাস পূর্বে স্বামীর সাথে বিচ্ছেদ হয়। তারপর থেকে সে কেরানীগঞ্জে বাবার বাড়িতেই বসবাস করে আসছিলো। বৃহস্পতিবার (১৩ জুলাই)  বিকেল ৫ টার দিকে পাগলা বৈরাগী বাড়ীস্থ সে তার বান্ধবী  শ্রাবন্তীর বাড়িতে বেড়াতে আসেন এবং সেখানেই রাত্রিযাপন করেন। পরদিন শুক্রবার সকালে সে নয়মাটিস্থ তার বড় বোনের বাসায় বেড়াতে যায়। সেখান থেকে রাত আটটার দিকে পুনরায় বান্ধবীর বাড়িতে চলে আসেন। রাত পৌনে দশটার দিকে বান্ধবীর বাড়ির পার্শ্ববর্তী দোকানে খাবার কিনতে গেলে অভিযুক্তরা তার গলায় ছুরি ঠেকিয়ে পাগলা বৈরাগি বাড়িস্থ অভিযুক্ত শাওনের বাসায় নিয়ে গিয়ে তাকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। এক পর্যায়ে সে জ্ঞান হারিয়ে ফেলে। রাত একটার দিকে তার জ্ঞান ফিরে এলে তাকে বাসা থেকে বের করে দেওয়া হয়।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ফতুল্লা মডেল থানার হাজীগঞ্জ ফাড়ির ইনচার্জ বিপ্লব জানান, মামলা হয়েছে। অভিযুক্তদের গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

news24bd.tv তৌহিদ