দাবানলে পুড়ছে স্পেন-ফ্রান্স ও পর্তুগাল
দাবানলে পুড়ছে স্পেন-ফ্রান্স ও পর্তুগাল

সংগৃহীত ছবি

দাবানলে পুড়ছে স্পেন-ফ্রান্স ও পর্তুগাল

অনলাইন ডেস্ক

তীব্র তাপপ্রবাহে ইউরোপে ভয়াবহ অবস্থা সৃষ্টি হয়েছে। দাবানলে পুড়ছে ফ্রান্স, স্পেন ও পর্তুগালের মতো দেশগুলো। শিগগিরই যে এই ভয়াবহতা কমবে, এমন কোনো সম্ভাবনাও দেখা যাচ্ছে না। সপ্তাহখানেক ধরে চলা দাবানল নিয়ন্ত্রণে অগ্নিনির্বাপক কর্মীরা রীতিমতো যুদ্ধ করেও কোনো সুরাহা করতে পারছেন না বলে বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

ইউরোপের কিছু অংশে তাপমাত্রা ৪৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসের ওপর চলে যাওয়ার পর এই দাবানলের সৃষ্টি হয়। দিন যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে পরিস্থিতি খারাপের দিকে যাচ্ছে।

স্প্যানিশ সীমান্তের কাছে উত্তর পর্তুগালের ফোজ কোয়া এলাকায় পানি দিয়ে দাবানল নিয়ন্ত্রণ করতে গিয়ে বিমান বিধ্বস্ত হয়ে একজন পাইলট মারা গেছেন।

ফ্রান্সের গিরোন্ডে অঞ্চল দাবানলে ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ওই এলাকার ১২ হাজারের বেশি মানুষকে সরিয়ে নেয়া হযেছে। শহর-গ্রাম ছেড়ে পালিয়ে যাচ্ছে অধিবাসীরা।

দক্ষিণ স্পেনে কোস্টা দেল সোলের কাছে মিজাস পাহাড়ে ছড়িয়ে পড়া দাবানলের কারণে এলাকার প্রায় আড়াই হাজার বাসিন্দাকে বাড়ি ছেড়ে চলে যেতে হয়েছে।

বিবিসি বলছে, স্পেন ও পর্তুগালে তাপমাত্রা ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের ওপর। দাবানলের ভয়াবহতা ছাড়াও তাপপ্রবাহে এ দুই দেশে প্রায় ৩০০ জনের মৃত্যু হয়েছে।

ফ্রান্সের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে তীব্র তাপপ্রবাহে বাড়ছে দাবানল। বেগ পেতে হচ্ছে অগ্নিনির্বাপক কর্মীদের। সাম্প্রতিক তাপপ্রবাহে দেশটিতে অন্তত ৪৩ জনের মৃত্যু হয়েছে।

ফ্রান্সে ১০ হাজার হেক্টর এলাকাজুড়ে ছড়িয়েছে দাবানল। তিন হাজার কর্মী আগুন নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করছেন বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

মঙ্গলবার থেকে এখন পর্যন্ত পর্তুগালে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা উঠেছে ৪৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। স্পেনেও রয়েছে ৪০-এর ওপর। পর্তুগালে দাবানলে পুড়েছে ৩০ হাজার হেক্টরের বেশি এলাকা।

ইতালিতে দাবানল ছড়িয়ে পড়ার প্রেক্ষাপটে জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে। গ্রিসের ৫০ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে ছড়িয়ে পড়া দাবানল থামাতেও হিমশিম খেতে হচ্ছে কর্তৃপক্ষকে। দাবানলে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে মরক্কোসহ আরও কয়েকটি দেশও।

news24bd.tv/আলী