যাদের সক্ষমতা আছে তারা জাতীয় নির্বাচনে আসবে : হানিফ
যাদের সক্ষমতা আছে তারা জাতীয় নির্বাচনে আসবে : হানিফ

যাদের সক্ষমতা আছে তারা জাতীয় নির্বাচনে আসবে : হানিফ

জাহিদুজ্জামান, কুষ্টিয়া: 

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ বলেছেন, অধিক গ্রহণযোগ্য করতে ও নির্বাচন ত্রুটিমুক্ত করার পরামর্শ নিতে কমিশন রাজনৈতিক দলের সঙ্গে বৈঠক করছেন। কোন দল সেখানে যদি না যায় বা মতামত না দেয় সেটা তাদের ব্যাপার। তার মানে এই নয় যে তাদের বাদ দিয়ে নির্বাচন হবে। কেউ মতামত না দিলে নির্বাচনই হবে না এমনটাও নয়।

 

হানিফ বলেন, এ নিয়ে আমি কোন সংকট দেখি না। জাতীয় নির্বাচনের এখনও দেড় বছর বাকি। এখন যেসব কথাবার্তা হচ্ছে তা রাজনৈতিক। এটা কোন সিদ্ধান্ত নয়।

যাদের নির্বাচন করার সক্ষমতা আছে তারা সবাই নির্বাচনে আসবে। আমরা চাই সব দল নির্বাচনে আসুক। তবে যারা নির্বাচন করার সক্ষমতা হারিয়েছে তারা ভয়ে আসতে চায় না।

কুষ্টিয়া শিল্পকলা একাডেমিতে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধানদের সঙ্গে মতবিনিময় সভা শুরুর আগে আজ শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০টায় তিনি এসব কথা বলেন।  

বিএনপিকে উদ্দেশ্য করে হানিফ বলেন, চোরের মায়ের বড় গলা। ক্ষমতায় থাকতে তারা লুটপাট করতে হাওয়া ভবন খাওয়া ভবন বানিয়ে দেশটাকে ধ্বংস করে দিয়েছিল। তাদের নেত্রী খালেদা জিয়া এতিমের টাকা আত্মসাতের মামলায় দণ্ডিত হয়ে কারাগারে। আরেক শীর্ষ নেতা তারেক রহমান মানি লন্ডারিং থেকে শুরু করে দুর্নীতি, অর্থ আত্মসাৎ, সন্ত্রাসী নানা অপকর্মের জন্য দণ্ডিত হয়ে বিদেশে পলাতক।  

বিএনপি গঠনতন্ত্রের ধারা পরিবর্তন করে দুর্নীতিতে অভিযুক্তদের পদে রাখার সুযোগ সৃষ্টি করেছে। এর মাধ্যমে তারা দুর্নীতিবাজ দল হিসেবে নিজেদেরকে প্রতিষ্ঠিত করেছে। সেই দলের নেতারা কী করে অন্য দলের দুর্নীতি খুঁজে বেড়ায় এটি জাতির কাছে হাস্যকর।  

আরেক প্রশ্নের জবাবে হানিফ বলেন, আওয়ামী লীগ কখনো ভুয়া নির্বাচন করে না। বিএনপি করেছিল, তাই জনগণ তাদের টেনেহিঁচড়ে ক্ষমতা থেকে নামিয়ে দিয়েছিল। জনগণের সমর্থন আছে বলেই আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আছে বলেন হানিফ।

news24bd.tv/কামরুল