মধ্যবিত্ত ও উচ্চবিত্ত বয়স্ক পুরুষদের টার্গেট করত বিথি-নিষিরা
মধ্যবিত্ত ও উচ্চবিত্ত বয়স্ক পুরুষদের টার্গেট করত বিথি-নিষিরা

মধ্যবিত্ত ও উচ্চবিত্ত বয়স্ক পুরুষদের টার্গেট করত বিথি-নিষিরা

মাসুদা লাবনী

রাজধানীতে বাসায় ডেকে অসামাজিক কাজের অভিযোগ তুলে ফাঁসানো হতো মধ্যবিত্ত ও উচ্চবিত্ত পরিবারের বয়স্ক পুরুষদের। এমন চক্রের পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করেছে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের গুলশান বিভাগ। তারা প্রথমে সম্পর্ক তৈরি করে ডেকে আনতো বাসায়। তারপর কখনও ছবি তুলে আবার কখনও এলাকাবাসী সেজে ভয়ভীতি দেখিয়ে টাকা হাতিয়ে নিতো।

পরিবার-পরিজন রেখে অন্য কোথায় কারো ফাঁদে না পড়তে, সবার সচেতন হওয়া উচিত বলে জানায় ডিবি।  

রাজধানীতে পার্টি-অনুষ্ঠান কিংবা পার্কে-পরচিয় থেকে প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে পয়সাওয়ালা ষাটোর্ধ্ব পুরুষদের বাসায় ডেকে আনতো বিথি-নিষিরা। পরে দুর্বল মুহূর্তের ছবি তুলে আবার কখনও এলাকাবাসী সেজে বাসায় ঢুকে নানা রকম হুমকিধামকি দিতো পুরুষ সদস্যরা। নারী-পুরুষ মিলে নয়জনের এমন একটি চক্রের সন্ধান পেয়েছে ডিবির গুলশান বিভাগ।

 

চক্রের মূলহোতা স্বামী-স্ত্রী বিথি আক্তার ও সাইফুল ইসলাম। তারা আলাদা বাসা ভাড়া করে চালাতো প্রতারণা। সামাজিক মাধ্যমে ছবি ছড়ানোর ভয়ভীতি দেখিয়ে- হাতিয়ে নিতো লাখ লাখ টাকা।

ভুক্তভোগীরা জানায়, তাদের জোর করে নোংরা ছবি তুলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখাতো।

চক্রের পাঁচজনকে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করেছে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের গুলশান বিভাগ। বাকিদের ধরতে অভিযান অব্যাহত। তাদের বিরুদ্ধে একাধিক মামলাও রয়েছে।

পরিবার পরিজন রেখে অন্য কোথায় কারো এমন ফাঁদে না পড়তে, সচেতন হবার পরামর্শ গোয়েন্দা পুলিশের।

news24bd.tv তৌহিদ