কুষ্টিয়ায় ৫ জনের যাবজ্জীবন
কুষ্টিয়ায় ৫ জনের যাবজ্জীবন

কুষ্টিয়ায় ৫ জনের যাবজ্জীবন

জাহিদুজ্জামান, কুষ্টিয়া

কুষ্টিয়ার এক আওয়ামী লীগ নেতা ও এক কলেজ শিক্ষককে গুলি করে হত্যা মামলার পাঁচ আসামিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। সেই সঙ্গে তাদের ২০ হাজার টাকা করে জরিমানা, অনাদায়ে আরও এক বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

কুষ্টিয়া আদালতের সরকারি আইনজীবী অনুপ কুমার নন্দী জানান, আজ দুপুর ২টার দিকে কুষ্টিয়ার অতিরিক্ত দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. তাজুল ইসলাম এ রায় দেন।

তিনি বলেন, যাবজ্জীবন কারাদণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন- কুষ্টিয়া শহরের আড়ুয়াপাড়া এলাকার তারিক, কামাল রেজা নিপু, সিরাজুল ইসলাম মাসুদ, রায়হান আলী এবং সদর উপজেলার কাঞ্চনপুর গ্রামের সিদ্দিক ওরফে বাংলা ভাই।

এরমধ্যে সিদ্দিক
পলাতক। রায় ঘোষণার সময় বাকী আসামিরা আদালতে উপস্থিত ছিলেন। রায় ঘোষণার পর পরই কারাদণ্ডপ্রাপ্ত চার আসামিকে পুলিশ পাহারায় জেলা কারাগারে পাঠানো হয়। এ মামলায় আরো ১০ আসামিকে খালাস দিয়েছেন আদালত।

আদালত সূত্রে জানা যায়, দাবি করা চাঁদা না দেওয়ায় ২০০৯ সালের ১৫ আগস্ট রাতে আওয়ামী লীগ নেতা ও কলেজ শিক্ষককে গুলি করে হত্যা করে আসামিরা। ওইদিন রাত ৯টা ১৫ মিনিটের দিকে ভেড়ামারা শহরের রেলবাজার এলাকায় একটি কাপড়ের দোকানে বসে ছিলেন ভেড়ামারা উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. মেহেরুল ইসলাম (৫০) ও কলেজ শিক্ষক মো. বান্দা ফাত্তাহ মোহন (৫৫)। ঘটনার তিন দিন পর ২৮ আগস্ট ভেড়ামারা থানার এসআই শেখ আমিনুল ইসলাম বাদী হয়ে মামলা করেন।

২০১১ সালের ২২ জুলাই পুলিশ আসামিদের বিরুদ্ধে আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেন। আদালত এ মামলায় ১৬ জনে সাক্ষ্য নিয়েছেন। দোষী প্রমাণ হওয়ায় ৫ আসামিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

news24bd.tv তৌহিদ