গাজীপুরে পৃথক ঘটনায় তিনজনের মৃত্যু
গাজীপুরে পৃথক ঘটনায় তিনজনের মৃত্যু

সংগৃহীত ছবি

গাজীপুরে পৃথক ঘটনায় তিনজনের মৃত্যু

অনলাইন ডেস্ক

গাজীপুরের শ্রীপুরে আলাদা তিনটি ঘটনায় তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। নিহতদের একজন পুরুষ অপর দুইজন নারী। সোমবার বিকাল ৫টা থেকে ৭টার মধ্যে এই তিনজনের মৃত্যু হয়।

সোমবার (২৫ জুলাই) সন্ধ্যা ৭টার দিকে পৌর শহরের চৌরাস্তা এলাকায় টায়ারের দোকানে কাজ করার আঘাতপ্রাপ্ত হয়ে হাসপাতালে নেয়ার পথে মারা যায় আফাজ উদ্দিন (৩৫)।

তিনি পৌরসভার ২ নং ওয়ার্ডের পাগলা বাড়ী এলাকার মৃত আবুল হাসেমের ছেলে।

প্রত্যক্ষদর্শী রাসেল জানান, আফাজ একটি টমটমের চাকার লিক সারিয়ে হাওয়া দিচ্ছিলেন এসময় চাকায় লাগানো ৪টি নাট খুলে কপালে লাগে। আঘাত পেয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়লে তাকে শ্রীপুর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় তাকে গাজীপুরের শহীদ তাজ উদ্দিন মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়। সেখানে নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।

শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এর জরুরি বিভাগে কর্মরত চিকিৎসক নজরুল ইসলাম জানান, সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে মাথায় আঘাত নিয়ে আফাজ উদ্দিনকে হাসপাতালে নিয়ে আসা হয় উন্নত চিকিৎসার জন্য আমরা তাকে শহীদ তাজ উদ্দিন মেডিকেল কলেজে রেফার্ড করি।

এদিকে শ্রীপুর পৌরসভার কেওয়া পূর্বখন্ড গ্রাম থেকে রিয়া আক্তার নামে এক পোশাক কারখানায় নারী শ্রমিকের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।  সোমবার রাত নয়টার দিকে পৌরসভার কেওয়া পূর্বখন্ড গ্রামের জৈনক মোবারক হোসেনের বাড়ি থেকে ঐ পোশাক কারখানায় নারী শ্রমিকের মরদেহ উদ্ধার করে শ্রীপুর থানা পুলিশ। নিহত পোশাক কারখানায় শ্রমিক রিয়া আক্তার (১৮) এর বাড়ি নরসিংদী জেলার বলে জানাযায়। তিনি শ্রীপুর পৌরসভার ফখরুদ্দিন টেক্সটাইল নামক একটি কারখানায় শ্রমিকের কাজ করতো।

এছাড়া উপজেলা গোসিংগা ইউনিয়নের গোসিংগা বাজারে অটোরিকশার সাথে ধাক্কা লেগে মারা যান ফরিদা খাতুন (৫৫)।  তিনি গোসিংগার দরিখোজেখানি গ্রামের মৃত আব্দুল মজিদের স্ত্রী।

নিহতের আত্মীয় রাজীব প্রধান বলেন, ফরিদা খাতুন আত্মীয়ের বাড়ীতে যাওয়ার উদ্দেশ্যে বরমী ইউনিয়নের বৈরাগবাড়ী সিএনজি স্টেশনে গেলে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি অটোরিকশা শরীরের উপরে তুলে দিলে তিনি মাটিতে লুটিয়ে পড়েন এবং নাক ও মুখ দিয়ে রক্ত ক্ষরণ হয়। উদ্ধার করে শ্রীপুর হাসপাতালে নেয়া হলে অবস্থার অবনতি দেখে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে ঢাকার উত্তরা এলাকায় গেলে তিনি মারা যান।

গোসিংগা ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ড সদস্য কবির শেখ বলেন, ফরিদা খাতুনের মৃত্যুর খবর শুনেছি। তিনি সড়ক দুর্ঘটনায় মারা গেছেন। তার লাশ বাড়ীতে আনা হচ্ছে।  

শ্রীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান বলেন, ঘটনাস্থল থেকে পোশাক কারখানায় নারী শ্রমিক রিয়ার মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুর শহিদ তাজ উদ্দিন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।  বাকী দুজনের বিষয়ে এখনো কেউ থানায় জানায়নি। খোজ নিয়ে এবিষয়ে পরবর্তী আইনী পদক্ষেপ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

news24bd.tv/আলী