বাগেরহাটে দলবেঁধে ধর্ষণ, প্রধান আসামি গ্রেপ্তার
বাগেরহাটে দলবেঁধে ধর্ষণ, প্রধান আসামি গ্রেপ্তার

বাগেরহাটে দলবেঁধে ধর্ষণ, প্রধান আসামি গ্রেপ্তার

বাগেরহাট প্রতিনিধি

বাগেরহাটে স্বামী পরিত্যক্তা এক নারীকে (২০) দলবেঁধে ধর্ষণ মামলার প্রধান আসামি সাইফুল ইসলাম হাওলাদারকে (২৫) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। সোমবার রাতে জেলা শহরে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

মঙ্গলবার দুপুরে সাইফুলকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। গ্রেপ্তার সাইফুল সদর উপজেলার ডেমা ইউনিয়নের বড় বাশবাড়িয়া গ্রামের শামছুল হাওলাদারের ছেলে।

অন্যদিকে ভুক্তভোগী নারীর ডাক্তারি পরীক্ষা মঙ্গলবার সকালে বাগেরহাট সদর হাসপাতালে সম্পন্ন হয়েছে। গুরুতর অসুস্থ্য ওই নারী বাগেরহাট সদর হাসপাতালের গাইনি ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

পুলিশ বলছে, অন্য চার ধর্ষককে গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে। রোববার দিবাগত মধ্যরাতে বাগেরহাট সদর উপজেলার বড় বাশবাড়িয়া গ্রামে স্বামী পরিত্যক্তা এক নারীকে ডেমা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের এক নেতার আশ্রয়ে থাকা কয়েকজন বখাটে দলবেঁধে ধর্ষণ করে। পরে প্রতিবেশীরা গুরুতর অসুস্থ্য ওই নারীকে উদ্ধার করে সোমবার সকালে বাগেরহাট সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।  

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ওই নারী জানান, রোববার মধ্যরাতে প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে বাইরে বের হন তিনি। সে সময় আগে থেকে ওঁৎ পেতে থাকা সাইফুল ইসলাম হাওলাদার, রাব্বি হাওলাদার (২২), জাহিদুল হাওলাদার (৩৫), সজীব হাওলাদার (২৫) ও রিয়াজ হাওলাদার (২৩) আমাকে মুখ চেপে ধরে বাড়ির পাশের সুপারি বাগানে নিয়ে পর্যায়ক্রমে পাঁচজনই ধর্ষণ করেন। সোমবার বিকেলে ভুক্তভোগী ওই নারী বাদী হয়ে সাইফুলসহ পাঁচজনের নাম উল্লেখ করে বাগেরহাট মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন।

বাগেরহাটের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মাহমুদ হাসান জানান, দলবেঁধে ধর্ষণের ঘটনায় সোমবার বিকেলে ভুক্তভোগী নারী বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে পাঁচজনের নামে থানায় মামলা দায়ের করেন। পুলিশ সোমবার রাতে অভিযান চালিয়ে প্রধান আসামি সাইফুলকে গ্রেপ্তার করেছে। মঙ্গলবার তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। অন্য চার ধর্ষককে গ্রেপ্তারে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে।

news24bd.tv তৌহিদ