জনবল সংকটে, রংপুর চিড়িয়াখানার বেহাল দশা

জনবল সংকটে, রংপুর চিড়িয়াখানার বেহাল দশা

আলী তালুকদার

নানা অব্যবস্থাপনা ও বেহাল দশায় চলছে রংপুর সরকারি চিড়িয়াখানা। পশু-পাখির গায়ে অসংখ্য আঘাত আর খাদ্য সংকটে পুরোদস্তুর ভেঙ্গে পড়েছে চিড়িয়াখানার সার্বিক চিত্র। হতাশ হচ্ছেন দর্শনাথীরা। যার জবাবে অসহায়ত্ব প্রকাশ করেছেন চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষ।

 

পুরো চিড়িয়াখানা জুড়ে পাখির শূন্য খাঁচা। যেখানে পাখির কলকাকলিতে মুখরিত হওয়ার কথা চারপাশ, সেখানে মুখ থুবড়ে পড়ে আছে রংপুরের সরকারি চিড়িয়াখানা।  

ময়ূরের ভাঙ্গা ও নোংরা পেখম দেখলেই বোঝা যায় কতোটা অযত্ন আর অবহেলায় রয়েছে এখানকার পাখিরা। খরগোশের খাঁচায়ও নেই কোন চঞ্চলতা।

বানরের গায়ে অসংখ্য আঘাতের চিহ্ন, ফ্যাকাশে বনে যাওয়া চিত্রা হরিনের এমন দৃশ্য বলে দেয়, চিকিৎসার অবহেলায় রোগাক্রান্ত পশু পাখির প্রতি অযত্নের কথা। চিড়িয়াখাানার এমন দৃশ্য দেখে হতাশ দর্শনার্থীরা।

ক্ষুধার জ্বালায় একাকিত্বে বসে গর্জন করেছে সিংহ।  

প্রাণীর খাদ্য সংকট, চিকিৎসার অবহেলা, অপরিচ্ছন্ন চারপাশ আর লোকবল সংকটের বিষয়ে অনেকটাই অসহায়ত্বের কথা জানান চিড়িয়াখানার কর্তৃপক্ষ।

চিড়িয়াখানার বেহাল দশা ফেরাতে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের নজরদারি বাড়ানোর দাবি জানান দর্শনার্থীরা।

news24bd.tv/কামরুল