‘৩৫ হাজার রোহিঙ্গার তালিকা মিয়ানমাকে দেওয়া হয়েছে’
‘৩৫ হাজার রোহিঙ্গার তালিকা মিয়ানমাকে দেওয়া হয়েছে’

সচিবালয়ে ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী

‘৩৫ হাজার রোহিঙ্গার তালিকা মিয়ানমাকে দেওয়া হয়েছে’

নিজস্ব প্রতিবেদক

দুই মাস আগে মিয়ানমারের সেনা সরকারকে ৩৫ হাজার রোহিঙ্গার তালিকা দেওয়া হলেও এখনও জবাব মেলেনি বলে জানিয়েছেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপণা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী। তবে, দেশটির সেনা সরকারের সাথে এ নিয়ে আলোচনা শুরু হওয়াকে ইতিবাচক হিসেবে দেখছেন তিনি।

সচিবালয়ে ইউরোপিয় কমিশনের বাংলাদেশ প্রধান আনা ওরলানডিনির সাথে বৈঠক শেষে এসব তথ্য জানান দুর্যোগ ব্যবস্থাপণা প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমান।

তিনি বলেন, দুই মাস আগে প্রত্যাবাসনে রোহিঙ্গাদের ৩৫ হাজারের তালিকা মিয়ানমার কর্তৃপক্ষকে দেওয়া হয়েছে।

যাচাই বাছাই করে তারা সন্তষ্ট হয়ে জানাবে এক্ষেত্রে তাদের করণীয়। তবে এখনও তাদের জবাব পাওয়া যায়নি। সেনাবাহিনী ক্ষমতা নেওয়ার পর একটা সংকট এক্ষেত্রে তৈরি হয়েছিল, সেটা এখন কেটে যাচ্ছে। তাদের সাথে বৈঠক হয়েছে। মিয়ানমারের জবাব পেলে প্রত্যাবাসনে উদ্যোগ নেওয়া হবে। প্রত্যাবাসনে আরো সাড়ে ৮ লাখ রোহিঙ্গার তালিকা করা হয়েছে।

এছাড়া প্রতিমন্ত্রী জানান, ভূমিকম্পের মতো দুর্যোগে ক্ষয়ক্ষতি কমিয়ে আনতে ইউরোপিয় কমিশন বাংলাদেশের সাথে কাজ করবে। স্বেচ্ছাসেবকদের দক্ষতা বৃদ্ধিতে প্রশিক্ষণে সহায়তা করবে। ইউনকমিশন এবছর ২.৫ মিলিয়ন ডলার সহায়তা করছে বাংলাদেশকে। ১.২ মিলিয়ন ইউরো সহায়তা করবে বন্যায় পুনর্বাসনে।

সিভিল এভিয়েশনের প্রধান প্রকৌশলী মো. আব্দুল মালেক ও ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের মালিক রাফিজ উদ্দীনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যানের কাছে চিঠি দিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন-দুদক।

সম্প্রতি দুদকের মহাপরিচালকের সই করা চিঠিতে রাজধানীর খিলখেতের কাওলা আমবাগান এলাকায় সিভিল এভিয়েশনের কোয়ার্টার রক্ষণাবেক্ষণের কাজ শেষ না করে এবং কোয়ার্টারে বরাদ্দদের স্বাক্ষর ছাড়াই বিল উঠানোর অভিযোগের বিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে বলা হয়। এর আগে দুদকের এনফোর্সমেন্ট বিভাগে এ নিয়ে অভিযোগ আসে। এরই প্রেক্ষিতে এই চিঠি দেয় দুদক। বাংলাদেশ বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যানের কাছে পাঠানো চিঠিতে অভিযোগের বিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহণপূর্বক দুদকে অবহিত করার কথাও জানানো হয়।

news24bd.tv তৌহিদ