৯৯৯-এ কলে ধরা ডাকাত
৯৯৯-এ কলে ধরা ডাকাত

মোংলায় বঙ্গবন্ধু ক্যানেলে ড্রেজারে ডাকাতি

৯৯৯-এ কলে ধরা ডাকাত

শেখ আহসানুল করিম, বাগেরহাট

বঙ্গবন্ধু মোংলা-ঘাষিয়াখালী আর্ন্তজাতিক নৌ ক্যানেল খনন কাজের এম রহমান নামের একটি ড্রেজারে ডাকাতি সংগঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার ভোরে একদল ডাকাত ড্রেজারে থাকা স্টাফদের ওপর হামলা চালিয়ে ১৫০০ লিটার ডিজেল, আট ড্রাম রং, একটি পাম্পও মটর, ১৬ কেজি গ্রিজ ও ১০ বস্তা নাটবোল্ট লুট করে। এসময়ে ডাকাতদের হামলায় ড্রেজারের তিনজন স্টাফ গুরুতর আহত হয়। ডাকাতরা চলে যাওয়ার পরপরই ওই ড্রেজার থেকে সাহায্য চেয়ে জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯ ফোন দেয়।

৯৯৯ থেকে বিষয়টি মোংলা নৌ পুলিশকে জানানো হলে তারা দ্রুত অভিযানে নেমে মো. রাসেল (২৫) নামে এক ডাকাতকে লুণ্ঠিত মালামালসহ আটক করে।

ড্রেজারের ম্যানেজার গোপিনাথ দাস জানান, বৃহস্পতিবার ভোরে বাগেরহাটে বঙ্গবন্ধু মোংলা-ঘাষিয়াখালী আর্ন্তজাতিক নৌ ক্যানেল খনন কাজে থাকা তাদের এম রহমান নামে ড্রেজারটিতে একদল ডাকাত হানা দিয়ে স্টাফদের ওপর হামলা চালিয়ে ১৫০০ লিটার ডিজেল, আট ড্রাম রং, একটি পাম্পও মটর, ১৬ কেজি গ্রিজ ও ১০ বস্তা নাটবোল্ট লুট করে। এসময়ে ডাকাতদের হামলায় ড্রেজারের ৩ স্টাফ মো. জাহিদুল কবির (৩৫), লোকমান হোসেন (৩৮) ও রিপন শেখ (২৮) গুরুতর আহত হয়। ডাকাতরা চলে যাওয়ার পরপরই ড্রেজারের সিনিয়র টেকনিশিয়ান মো. নিজাম সাহায্য চেয়ে জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯ ফোন দেয়। ৯৯৯ থেকে বিষয়টি মোংলা নৌ পুলিশকে জানানো হলে তারা দ্রুত ঘটনাস্থলে এস পোঁছায়। পরে ড্রেজার ডাকাতি মালামাল নিয়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় ধাওয়া করে লুন্ঠিত মালামাল ডাকাত দলের এক সদস্যকে আটক করে নৌ পুলিশ। ড্রেজারটির গুরুতর আহত তিনজন স্টাফকে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

মোংলা নৌ পুলিশের ইনচার্জ শিশির ঘোষ জানান, জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯ নম্বরে কল পেয়ে প্রথমে তারা বঙ্গবন্ধু মোংলা-ঘাষিয়াখালী আর্ন্তজাতিক নৌ ক্যানেলে ড্রেজারে ডাকাতির ঘটনা জানতে পারেন। দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে অভিযান চালিয়ে মো. রাসেল (২৫) নামে এক ডাকাতকে লুন্ঠিত মালামালসহ আটক করতে সক্ষম হন তারা। বাকি আটজন ডাকাত মালামাল ফেলে পালিয়ে যায়। ডাকাত রাসলের বাড়ি মোংলা উপজেলার চিলা ইউনিয়নের চিনির ব্রিজ এলাকায়। এ ঘটনায় অন্য অন্য ডাকাতদের আটকে নৌ পুলিশের অভিযান চলছে বলেও জানান তিনি।

news24bd.tv/তৌহিদ