চলন্ত বাসে ডাকাতি-ধর্ষণ : জড়িত সবাই চিহ্নিত
চলন্ত বাসে ডাকাতি-ধর্ষণ : জড়িত সবাই চিহ্নিত

চলন্ত বাসে ডাকাতি-ধর্ষণ : জড়িত সবাই চিহ্নিত

অনলাইন ডেস্ক

কুষ্টিয়া থেকে ছেড়ে আসা বাসে ডাকাতি ও ধর্ষণের ঘটনায় জড়িতদের চিহ্নিত করেছে পুলিশ। এদের মধ্যে তিন থেকে চারজন টাঙ্গাইল জেলার বাসিন্দা, বাকিরা বিভিন্ন জেলার। তবে তারা বসবাস করতেন গাজীপুর, চন্দ্রা ও সাভার এলাকায়।

বৃহস্পতিবার (৪ আগস্ট) ভোরে চক্রের অন্যতম সদস্য রাজা মিয়াকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তিনি ডাকাতি ও ধর্ষণের ঘটনার সঙ্গে জড়িত সবার নাম ও পরিচয় প্রকাশ করেছেন।

পুলিশ বলছে, রাজা মিয়াকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। তাকে জিজ্ঞাসাবাদে এই চক্র এর আগে কোথাও এ ধরনের অপরাধ করেছে কি-না এবং চক্রে মোট কতজন সদস্য রয়েছে, সে সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য পাওয়া যাবে।

এ ঘটনায় আরও দুই আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- গাজীপুর জেলার কালিয়াকৈর উপজেলার কাঞ্চনপুর গ্রামের শুকুর আলীর ছেলে আউয়াল (৩০) ও কুড়িগ্রামের রৌমারী উপজেলার ধোনারচর পশ্চিমপাড়া গ্রামের বাহেজ উদ্দিনের ছেলে নুরনুবী (২৬)।

জানা যায়, রাজা মিয়া টাঙ্গাইল-চন্দ্রা সড়কে বাস চালাতেন ও শহরের দেওলা এলাকায় বাসা ভাড়া নিয়ে থাকতেন। এর আগে তার নামে কোনো মামলা না থাকলেও জুয়া খেলার অভ্যাস ছিল।

টাঙ্গাইলের পুলিশ সুপার সরকার মোহাম্মদ কায়সার জানান, ডাকাতি ও ধর্ষণের ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের চিহ্নিত করা হয়েছে। তাদের গ্রেপ্তারে একাধিক টিম কাজ করছে।

news24bd.tv/কামরুল