গণপিটুনিতে গরু চোর নিহত, ১৫০ জনের বিরুদ্ধে মামলা
গণপিটুনিতে গরু চোর নিহত, ১৫০ জনের বিরুদ্ধে মামলা

গণপিটুনিতে গরু চোর নিহত, ১৫০ জনের বিরুদ্ধে মামলা

নোয়াখালী প্রতিনিধি

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে গরু চুরির ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তেজিত জনতার গণপিটুনিতে এক যুবক নিহত হয়েছে। নিহত গরু চোরের নাম মোশারফ হোসেন রিপন (৪০)। এদিকে গণপিটুনির ঘটনায় কোম্পানীগঞ্জ থানার এসআই পুষ্প বরণ চাকমা বাদী হয়ে অজ্ঞাত ১৫০ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন। এছাড়া গরুর মালিক জাকির হোসেন বাদী হয়ে চুরির ঘটনায় থানায় আরেকটি মামলা করেছে।

 

আজ বুধবার ভোররাতে উপজেলার চরফকিরা ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের মুক্তিযোদ্ধা বাজারে এ ঘটনা ঘটে। নিহত যুবক ফেনী জেলার দাগনভূঞা উপজেলার বাসিন্দা।

নোয়াখালীর পুলিশ সুপার মো. শহীদুল ইসলাম ঘটনার বলেন, বুধবার রাত সাড়ে ৩টার দিকে উপজেলার চরফকিরা ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের অর্জুনতলা সংলগ্ন আবুল বাশারের বাড়ির জাকির হোসেনের গোয়ালঘর থেকে ৪টি গরুর বাছুর ও একই গ্রামের নুর উদ্দিনের গোয়ালঘর থেকে ৪টি গরুর বাছুরসহ মোট ৮টি গরুর বাছুর চুরি করে সংঘবদ্ধ একটি চক্র। গরু চুরি করে লেগুনা গাড়ি যোগে পালিয়ে যাওয়ার সময় গরুর মালিকরা বিষয়টি টের পেয়ে চারিদিকে ফোন করে খবর দিয়ে দেয়।

 

খবর পেয়ে স্থানীয় বাসিন্দারা চরফকিরা ইউনিয়নের মুক্তিযোদ্ধা বাজার এলাকার সাদ্দামের দোকানের সামনে ট্রাক্টর দিয়ে রাস্তায় ব্যারিকেড দেয়। এরপর ব্যারিকেডের মুখে ভোর পৌনে ৪টার দিকে স্থানীয় লোকজন চোরাই গরু ভর্তি গাড়ি আটক করে। ওই সময় গাড়িতে থাকা ৪ জন গরু চোরের মধ্যে ৩ জন পালিয়ে যেতে সক্ষম হলেও এক গরু চোরকে উত্তেজিত জনতা গণপিটুনি দেয়। গণপিটুনিতে ওই গরু চোর ঘটনাস্থলে নিহত হন।  

পরে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে মরদেহ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। খবর পেয়ে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। কোম্পানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা তদন্ত মিজানুর রহমান বলেন, এই ঘটনায় অজ্ঞাতনামা ১০০/১৫০ জনের বিরুদ্ধে ২টি মামলা হয়েছে এবং লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।  

news24bd.tv/কামরুল