অনির্দিষ্টকালের কর্মবিরতির ডাক চা শ্রমিকদের
অনির্দিষ্টকালের কর্মবিরতির ডাক চা শ্রমিকদের

সংগৃহীত ছবি

অনির্দিষ্টকালের কর্মবিরতির ডাক চা শ্রমিকদের

অনলাইন ডেস্ক

সারাদেশের ১৬৬টি চা বাগানে আগামীকাল সকাল থেকে অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘট ডেকেছে বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনিয়ন। চা শ্রমিকদের দৈনিক মজুরি ১২০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ৩০০ টাকা করার দাবিতে এই ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে সংগঠনটি।

ধর্মঘটের বিষয়টি নিশ্চিত করে বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনিয়নের মনু ভ্যালির সভাপতি ধনা বাউরি বলেন, আজ চা বাগানগুলোর মালিকপক্ষের সংগঠন বাংলাদেশীয় চা সংসদ যদি আমাদের মজুরি বৃদ্ধির ব্যাপারে কোনো সিদ্ধান্ত না জানায় তাহলে আমরা আগামীকাল সকাল ছয়টা থেকে দেশের ১৬৬টি চা বাগানের শ্রমিকরা অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘটে যাবো। পাশাপাশি চা শ্রমিকরা আগামীকাল সকাল থেকে মহাসড়কে অবস্থান নিয়ে সড়ক অবরোধও করব।

বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক নিপেন পাল জানান, গত ৩ আগস্ট আমরা চা বাগানের মালিকদের কাছে শ্রমিকদের মজুরি বৃদ্ধির জন্য ১ সপ্তাহের আল্টিমেটাম দিয়েছিলাম, কিন্তু তারা সেটাতে কর্ণপাত করেননি। এর প্রতিবাদে আমরা গত চারদিন ধরে সারাদেশের সকল চা বাগানে দুই ঘণ্টা করে কর্মবিরতি পালন করে যাচ্ছি। তারপরও মালিকপক্ষ আমাদের দাবি মেনে না নেওয়ায় আমরা ধর্মঘটের মত কঠোর কর্মসূচি দিতে বাধ্য হচ্ছি।

এদিকে চলমান এই সমস্যা সমাধানের জন্য গতকাল (বৃহস্পতিবার) বিকেলে বিভাগীয় শ্রম দফতরের মৌলভীবাজারের কার্যালয়ে বিভাগীয় শ্রম দফতরের উপপরিচালকের আমন্ত্রণে মালিকপক্ষ ও চা শ্রমিক পক্ষকে নিয়ে সমঝোতা বৈঠকের আয়োজন করা হয়।

কিন্তু সেই বৈঠকে চা বাগানের মালিক পক্ষের কেউ আসেনি।

বিভাগীয় শ্রম দফতরের উপ-পরিচালক মোহাম্মদ নাহিদুল ইসলাম বলেন, কাজ বন্ধ করে শ্রমিকরা আন্দোলনে গেলে মালিক ও শ্রমিক দুই পক্ষেরই ক্ষতি হবে। আমরা বিষয়টি সমাধানের জন্য বাংলাদেশ চা-শ্রমিক ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় নেতাদের সঙ্গে একটা সমঝোতা বৈঠক করেছি। আমাদের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ২৮ আগস্ট তাদের সঙ্গে বসতে সময় চেয়েছেন। আপাতত আন্দোলন স্থগিত রাখতে বলেছেন। বাংলাদেশ চা-শ্রমিক ইউনিয়ন সেটা মানেনি।

news24bd.tv/আলী