ক্রেনের চালক ও সহযোগীরা পলাতক
ক্রেনের চালক ও সহযোগীরা পলাতক

ক্রেনের চালক ও সহযোগীরা পলাতক

রাজধানীর উত্তরায় বাস র‍্যাপিড ট্রানজিটের (বিআরটি) উড়াল সড়ক নির্মাণের প্রকল্পের ক্রেন থেকে গার্ডার পড়ে প্রাইভেটকারে থাকা ৪ জন যাত্রী নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় পর থেকেই ক্রেনের চালক ও সহযোগীকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না বলে জানিয়েছে পুলিশ।

সোমবার (১৫ আগস্ট) বিকেলে উত্তরা পশ্চিম থানাধীন সেক্টর-৩ ঢাকা ময়মনসিংহ মহাসড়ক প্যারাডাইস টাওয়ারের সামনে এ ঘটনা ঘটে। দুর্ঘটনার পর থেকেই পলাতক তারা।

ফলে এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কাউকে আটক করতে পারেনি পুলিশ। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সেখানে দায়িত্বরত পুলিশ কর্মকর্তা মোহসীন।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানিয়েছে, সিগনাল না মেনেই ক্রেনটি নিয়ে আগাচ্ছিল ক্রেন চালক। এদিকে সড়কের একপাশে যানবাহন চলাচল করে।

উড়াল সড়কের একটি গার্ডার ক্রেনে স্থানান্তর করার সময় চলতে থাকা প্রাইভেটকারের ওপর পড়ে যায়। প্রকাণ্ড এই গার্ডারের চাপে থেঁতলে যায় ঢাকা মেট্রো গ-১১৬০০৮ নম্বরের প্রাইভেট কারটি। গাড়ির ভেতরে যারা ছিলেন তাদেরকে রক্তাক্ত অবস্থায় টেনে বের করে স্থানীয়রা।

নিহতদের এক আত্মীয় কান্নাজড়িত কণ্ঠে নিউজ টোয়েন্টিফোরকে জানান, গত শনিবার বিয়ের এক অনুষ্ঠান হয়েছে। প্রাইভেট কারটি আত্মীয়-স্বজনদের নিয়ে বিয়ের অনুষ্ঠান কাওলা থেকে আশুলিয়ায় যাচ্ছিল।  স্থানীয় এক প্রত্যক্ষদর্শীর জানান, মুহূর্তের মধ্যে দুর্ঘটনাটি ঘটে গেছে। ওই সময় রাস্তায় সঠিক ট্রাফিক সিগন্যাল ছিল না। সেটি থাকলে হয়তো এমনটি ঘটতো না। দুর্ঘটনার একটি ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, বিআরটি প্রকল্পের একটি গার্ডার ভেঙে পড়েছে খয়েরি রঙের একটি প্রাইভেটকারের ওপর। ভারি গার্ডার মাঝ বরাবর পড়ায়, প্রাইভেটকারটি একদম চ্যাপ্টা হয়ে গেছে। রাস্তায় জমাট রক্ত দেখতে পাওয়া গেছে। দুমড়ে-মুচড়ে যাওয়া গাড়িটি উদ্ধারে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর পাশাপাশি সাধারণ মানুষকেও দেখা যাচ্ছে।  

বর্তমানে উত্তরা রুটে যাতায়াত বন্ধ রয়েছে।  দুর্ঘটনার পর তীব্র যানজট দেখা দিয়েছে। যানজট নিরসন ও দুর্ঘটনা-কবলিত প্রাইভেটকারটি সরিয়ে নিতে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে পুলিশ। উদ্ধার কার্যক্রম চালাচ্ছে ফায়ার সার্ভিস।

news24bd.tv/FA