ইঞ্জিন বিকল হয়ে সাগরে তিনদিন : ট্রলারসহ ১৩ জেলে উদ্ধার
ইঞ্জিন বিকল হয়ে সাগরে তিনদিন : ট্রলারসহ ১৩ জেলে উদ্ধার

ইঞ্জিন বিকল হয়ে সাগরে তিনদিন : ট্রলারসহ ১৩ জেলে উদ্ধার

বাগেরহাট প্রতিনিধি

নিম্নচাপের প্রভাবে ইঞ্জিন বিকল হয়ে উত্তাল বঙ্গোপসাগরে তিনদিন ধরে ভাসতে থাকা একটি ফিশিং ট্রলারসহ ১৩ জন জেলেকে উদ্ধার করেছে মোংলা কোস্টগার্ড পশ্চিম জোনের সদস্যরা। সোমবার সকালে সুন্দরবনের শ্যালার চর এলাকা থেকে ফিশিং ট্রলারসহ উদ্ধার করা ১৩ জন জেলেকে বাগেরহাটের শরণখোলায় নিয়ে যায় কোস্টগার্ড।

মোংলা কোস্টগার্ড পশ্চিম জোন সদর দপ্তরের কর্মকর্তা লে. কমান্ডার বিএন এম মামুনুর রহমান সোমবার সন্ধ্যায় এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানান, গত ১২ আগস্ট পিরোজপুরের ভান্ডারিয়া উপজেলা হতে ১৩ জন জেলেসহ ‘ছোট হুজুরের দোয়া’ নামের ফিশিং ট্রলারটি বঙ্গোপসাগরে মাছ আহরণ করতে যায়। ১৩ আগস্ট সকাল ৯টায় উত্তাল বঙ্গোপসাগরে ঝড়ে ফিশিং ট্রলারটির ইঞ্জিন বিকল হয়ে পড়ে।

এরপর থেকে ১৩ জন জেলেসহ ফিশিং ট্রলারটি সাগরে ভাসতে থাকে। রোববার (১৪ আগস্ট) রাত ১১টার দিকে ১৩ জন জেলেসহ সাগরে ভাসতে ভাসতে ফিশিং ট্রলারটি সুন্দরবনের শ্যালার চর উপকূল এলাকা এলে তারা মোবাইল নেটওয়ার্ক পেয়ে যায়। এরপর ওই বিকল হওয়া ফিশিং ট্রলার থেকে সাহায্য চেয়ে জাতীয় জরুরী সেবা ৯৯৯ কল করা হয়।

দ্রুত ৯৯৯ থেকে বিষয়টি মোংলা কোস্টগার্ড পশ্চিম জেন সদর দপ্তরকে জানানো হয়।

এরপর রাতেই উদ্ধার অভিযান শুরু করে মোংলা কোস্টগার্ড পশ্চিম জেনের কচিখালী বিসিজি স্টেশনের সদস্যরা। সোমবার সকাল ৮টার দিকে সুন্দরবনের শ্যালার চর উপকূল থেকে ভাসমান অবস্থায় ফিশিং ট্রলারসহ ১৩ জন জেলেকে উদ্ধার করে কোস্টগার্ড।

এরপর উত্তল সাগর থেকে ফিশিং ট্রলারসহ ১৩ জেলেকে সুন্দরবনের শ্যালারচর ফরেস্ট অফিসের অদূরে নিরাপদ স্থানে এনে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়। এখন ইঞ্জিন বিকল হয়ে যাওয়া ‘ছোট হুজুরের দোয়া’ নামের ফিশিং ট্রলারসহ জেলেদের বাগেরহাটের শরণখোলায় নিয়ে আসা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন কোস্টগার্ডের এই কর্মকর্তা।

news24bd.tv/FA