এলএনজি কেনার প্রস্তাব নিয়ে কাতারে যাবে একটি দল
এলএনজি কেনার প্রস্তাব নিয়ে কাতারে যাবে একটি দল

সংগৃহীত ছবি

এলএনজি কেনার প্রস্তাব নিয়ে কাতারে যাবে একটি দল

অনলাইন ডেস্ক

দেশে জ্বালানি সঙ্কট মোকাবেলায় তরলীকৃত প্রাকৃতিক গ্যাস এলএনজি কেনার প্রস্তাব নিয়ে কাতারে যাবে একটি প্রতিনিধি দল। আগামী মাসেই অর্থ্যৎ সেপ্টেম্বরে যাবে সেই দল। এক সংবাদ সম্মেলনে মঙ্গলবার (১৬ আগস্ট) জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ এসব তথ্য জানান।

তিনি বলেন, ‘যারা আমাদের কাছে প্রস্তাব দিয়েছেন বা দেন নাই তাদের সবার সঙ্গে আমরা যোগাযোগ করছি।

বিশেষ করে কাতার এখনও প্রস্তাব দেয় নাই। কাতারের সঙ্গে আমরা যোগাযোগ করার চেষ্টা করছি। আগস্টের পরের মাসেই আমরা কাতারে একটি প্রতিনিধি দল পাঠাবো। ’

এ দিকে দেশে গ্যাস অনুসন্ধান জোরদার করার কথা বলে আসছেন বিশেষজ্ঞরা।

তাদের মতে, যথাযথ অনুসন্ধান চালিয়ে গেলে গ্যাস সঙ্কট এড়ানো যেত।

চলমান পরিস্থিতিতে গ্যাস সাশ্রয়ের জন্য রেশনিং ব্যবস্থা করেছে সরবরাহ। গ্যাস অনুসন্ধান ও উৎপাদন বাড়ানোর পরিকল্পনা করা হচ্ছে। পরিকল্পনা অনুযায়ী, ২০২৫ সালের মধ্যে ছয়শ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস উৎপাদন বাড়ানোর লক্ষ্য নিয়ে কাজ করছে পেট্রোবাংলা।

বর্তমানে দেশে গ্যাসের দৈনিক গড় উৎপাদন দুই হাজার ৩০০ মিলিয়ন ঘনফুট। দীর্ঘমেয়াদী চুক্তিতে আমদানি করা এলএনজি মিশিয়ে সরবরাহ হচ্ছে গড়ে দুই হাজার ৮০০ মিলিয়ন। এখনও ঘাটতি প্রায় ২০০ মিলিয়ন ঘনফুট।

পেট্রোবাংলার তথ্য মতে, ২০০৯ সালে দেশে দৈনিক গ্যাসের উৎপাদন ছিল এক হাজার ৭০০ মিলিয়ন ঘনফুট। দশ বছরে উৎপাদন বেড়েছে এক হাজার মিলিয়ন ঘনফুট। এ পর্যন্ত ১২৭টি বিভিন্ন ধরনের কুপ থেকে যোগ হয়েছে নতুন গ্যাস। তবে দিনদিন মজুদের সঙ্গে কমে আসছে উৎপাদনের পরিমাণও।

news24bd.tv/মামুন