মিরসরাইয়ে ট্রেন দুর্ঘটনা : গেটম্যান ও মাইক্রোচালক দায়ী
মিরসরাইয়ে ট্রেন দুর্ঘটনা : গেটম্যান ও মাইক্রোচালক দায়ী

সংগৃহীত ছবি

মিরসরাইয়ে ট্রেন দুর্ঘটনা : গেটম্যান ও মাইক্রোচালক দায়ী

অনলাইন ডেস্ক

গত ২৯ জুলাই চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে ট্রেনের সঙ্গে মাইক্রোবাসের দুর্ঘটনার ঘটনায় গেটম্যান সাদ্দাম হোসেন ও মাইক্রোবাসচালক গোলাম মোস্তফার দায় পেয়েছে তদন্ত কমিটি। গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে বিভাগীয় রেলওয়ের ব্যবস্থাপক (ডিআরএম) মুহম্মদ আবুল কালাম চৌধুরীর কাছে পাঁচ পৃষ্ঠার প্রতিবেদন জমা দেয় তদন্ত কমিটি।

তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে আনসার আলী বলেন, কাদের কারণে এই দুর্ঘটনা ঘটেছে, তা প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

এ বিষয়ে বিভাগীয় রেলওয়ের ব্যবস্থাপক (ডিআরএম) মুহম্মদ আবুল কালাম চৌধুরী জানান, গেটম্যান সাদ্দাম দুর্ঘটনার সময় ঘটনাস্থলে উপস্থিত থাকার বিষয়টি প্রমাণ করতে ব্যর্থ হয়েছেন।

তিনি জানান, এই ঘটনায় গেটম্যান সাদ্দামকে আগেই সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে। এখন তাঁর বিরুদ্ধে পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

এদিকে, দুর্ঘটনায় মাইক্রোবাসচালক গোলাম মোস্তফা দুর্ঘটনায় ঘটনাস্থলেই নিহত হন। আর গেটম্যান সাদ্দাম বর্তমানে কারাগারে আছেন।

গত ২৯ জুলাই ঢাকা থেকে চট্টগ্রামগামী মহানগর প্রভাতী ট্রেন পর্যটকবাহী একটি মাইক্রোবাসকে ধাক্কা দিয়ে প্রায় এক কিলোমিটার দূরে নিয়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলে মারা যান ১১ জন। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আরও দুজনের মৃত্যসহ মোট ১৩ জনের মৃত্যু হয়। নিহত ১৩ জনের মধ্যে মাইক্রোবাসচালক ছাড়া অন্যরা স্থানীয় একটি কোচিং সেন্টারের শিক্ষক-শিক্ষার্থী ছিলেন। তারা চট্টগ্রামের হাটহাজারী উপজেলার আমানবাজারের পূর্ব খন্দকিয়া গ্রামের বাসিন্দা। ঘটনার দিন সকালে তাঁরা মাইক্রোবাসে করে মিরসরাইয়ের খৈয়াছড়া ঝরনায় বেড়াতে যান। সেখান থেকে ফেরার পথে দুর্ঘটনার কবলে পড়েন।

এই ঘটনা তদন্তে দুটি কমিটি করে রেলওয়ে। একটি তদন্ত কমিটির প্রধান করা হয় রেলওয়ের পূর্বাঞ্চলের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী মোহাম্মদ আরমান হোসেনকে। অপর কমিটির প্রধান রেলওয়ের পূর্বাঞ্চলের বিভাগীয় পরিবহন কর্মকর্তা আনসার আলী। আনসার আলীর নেতৃত্বাধীন কমিটি প্রতিবেদন জমা দিলেও অপর কমিটি এখনো প্রতিবেদন জমা দেয়নি।  

news24bd.tv/রিমু