সফটওয়্যার লোডের আড়ালেই চলতো পর্নো ভিডিও বিক্রি!
সফটওয়্যার লোডের আড়ালেই চলতো পর্নো ভিডিও বিক্রি!

সফটওয়্যার লোডের আড়ালেই চলতো পর্নো ভিডিও বিক্রি!

নাটোর প্রতিনিধি

নাটোরের বড়াইগ্রামে পৃথক স্থানে অভিযান চালিয়ে পর্নো (অশ্লীল) ভিডিও সংরক্ষণ ও বিক্রির অভিযোগে চারজনকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব। এ সময় জব্দ করা হয় ৪টি কম্পিউটার ও ১০টি হার্ডডিস্ক। মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে পাঁচটা থেকে রাত সাড়ে ১১টা পর্যন্ত উপজেলার বাগডোব এবং জোনাইল বাজারে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

বুধবার (১৭ আগস্ট) সকাল ৯টার দিকে এক প্রেসবিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে বিষয়টি সাংবাদিকদের জানানো হয়।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন, একই উপজেলার পাড় বাগডোব গ্রামের সিডি ব্যবসায়ী আজাদ হোসেন ও বাগডোব গ্রামের আল আমিন ও শামছুল হক এবং চাঁদপুর গ্রামের জসিম উদ্দিন।

নাটোর র‍্যাব ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফরহাদ হোসেন জানান, সুনির্দিষ্ট গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে পর্নো ভিডিও সংরক্ষণ ও বিক্রির অভিযোগে চারজনকে আটক করা হয়। এরপর রাতেই বড়াইগ্রাম থানায় মামলা করে তাদের গ্রেফতার দেখানো হয়।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আটককৃতরা জানায়, তারা জব্দকৃত আলামত পর্নোগ্রাফি সংরক্ষণ এবং অর্থের বিনিময়ে এলাকার যুবক ও স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীদের নিকট দীর্ঘদিন ধরে হস্তান্তর করে আসছে।

আসামিরা মূলত কম্পিউটারের দোকানে গান, সফটওয়ার লোড, মোবাইল মেকানিক্সের ব্যবসার আড়ালে পর্নোগ্রাফি সংরক্ষণ ও বিক্রি করতো।

তিনি আরও জানান, পর্নোগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইন-২০১২ অনুযায়ী পর্নোগ্রাফি বিক্রয়, ভাড়া, বিতরণ, সরবরাহ, প্রকাশ্যে প্রদর্শন বা যেকোনো প্রকারে প্রচার করলে অথবা যেকোনো উদ্দেশে প্রস্তুত, উৎপাদন, পরিবহন বা সংরক্ষণ করলে তা অপরাধ বলে গণ্য হবে। উক্ত অপরাধের জন্য সর্বোচ্চ ২ বছর সশ্রম কারাদণ্ড এবং ১ লাখ টাকা পর্যন্ত অর্থদণ্ডে দণ্ডিত হবেন।

news24bd.tv/FA