চট্টগ্রামে বৈশাখী জুয়েলার্সে চুরির ঘটনায় মামলা দায়ের
চট্টগ্রামে বৈশাখী জুয়েলার্সে চুরির ঘটনায় মামলা দায়ের

সংগৃহীত ছবি

চট্টগ্রামে বৈশাখী জুয়েলার্সে চুরির ঘটনায় মামলা দায়ের

অনলাইন প্রতিবেদক

চট্টগ্রামের হালিশহর থানার নয়া বাজারের সুলতান চৌধুরী মার্কেটের বৈশাখী সাজ জুয়েলার্সে দুর্ধর্ষ চুরির ঘটনায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। মঙ্গলবার রাতে জুয়েলার্সের মালিক সেন্টু ধর বাদি হয়ে মামলাটি দায়ের করেন। তবে এ ঘটনায় পুলিশ এখনও কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি।

মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, গত ১৫ আগস্ট রাতে স্বর্ণের দোকানের কাজ শেষে ২টি লোহার কলাপসিবল গেইট, ২টি লোগার গ্রিলে তালা লাগিয়ে বাসায় চলে যান মালিক সেন্টু।

পরদিন দুপুরে দোকানের সামনের ২টি কলাপসিবল গেইট খুলে ভেতরে প্রবেশ করে দেখতে পান, ১টি লোহার সিন্দুক ভাঙ্গা, সিন্দুকে থাকা স্বর্ণালংকার নেই এবং দোকানের পেছনে ২টি লোহার গ্রিল দেওয়াল থেকে ভাঙ্গা ও সিসি ক্যামেরার তার কাটা।

জুয়েলার্সের মালিক সেন্টু ধর গণমাধ্যমকে বলেন, দোকানের লোহার কলাপসিবল গেইট ভাঙ্গা এবং একটি সিন্দুকের তালা ভাঙ্গা ও সিন্দুক খোলা এবং সিন্দুকের ভেতর রক্ষিত (বন্ধক ও মেরামতিসহ) স্বর্ণের ২০টি নেকলেস, ৮ জোড়া স্বর্ণের চুড়ি, ৪ জোড়া স্বর্ণের হাতের বালা, ৪ জোড়া স্বর্ণের হাতের বেসলেট, ২০ জোড়া স্বর্ণের কানের দুল, ২৫ জোড়া স্বর্ণের কান বালা, ৪০টি স্বর্ণের আংটি-পাথরসহ ২৪টি স্বর্ণের গলার চেইন, ৩০ জোড়া স্বর্ণের নথ রিং, সর্বমোট ৯০ ভরি স্বর্ণালংকার চুরি হয়।

সেন্টু জানান, খোয়া যাওয়া এসবের বর্তমান আনুমানিক বাজারমূল্য ৫০ লক্ষ টাকা। একই সঙ্গে নগদ ৫ লক্ষ টাকা চুরি হয়েছে।

পরে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের সিসি টিভি ফুটেজ পর্যালোচনা করে দেখি, অজ্ঞাতনামা দুই ব্যক্তি দোকানে ঢুকে চুরি করে। এ ঘটনায় আমি থানায় মামলা দায়ের করি।

এ বিষয়ে হালিশহর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জহির উদ্দিন বলেন, নয়া বাজারের বৈশাখী সাজ জুয়েলার্সে চুরির ঘটনায় দোকানের মালিক বাদি হয়ে মামলা দায়ের করেছেন। এ ঘটনায় আমরা সিসি-টিভি ফুটেজ উদ্ধার করেছি। আসামিদের গ্রেফতারে আমরা দ্রুত পদক্ষেপ গ্রহণ করছি।

news24bd.tv/FA