রাশিয়া থেকে সস্তায় তেল কিনে সমালোচনার মুখে ভারত
রাশিয়া থেকে সস্তায় তেল কিনে সমালোচনার মুখে ভারত

সংগৃহীত ছবি

রাশিয়া থেকে সস্তায় তেল কিনে সমালোচনার মুখে ভারত

অনলাইন ডেস্ক

বিশ্বের প্রায় সব দেশের ওপরই নেতিবাচক প্রভাব ফেলেছে ইউক্রেন রাশিয়ার যুদ্ধ। তবে এ যুদ্ধ নিয়ে ভারতের অবস্থান আলোকবর্তিকার মতোই। পশ্চিমা নিষেধাজ্ঞার পর রাশিয়ার তেলের দাম বিশ্ববাজারের তুলনায় তিন ভাগের এক ভাগে নেমেছে। এ অবস্থায় মস্কো থেকে সস্তায় বেশি বেশি তেল কিনছে দিল্লী।

এ নিয়ে সমালোচনার মুখেও পড়ছে ভারতকে।

জুলাইয়ের শেষ নাগাদ রাশিয়া থেকে গড়ে প্রতিদিন ১১ লাখ ব্যারেল অপরিশোধিত তেল কিনেছে ভারত। পরিসংখ্যান বলছে, দেশটির মোট জ্বালানি তেলের ৫ ভাগের ১ ভাগ এখন আসছে রাশিয়া থেকে। গত বছরে এর পরিমাণ ছিল মাত্র ২ শতাংশ।

ভারতের যুক্তি, রাশিয়ার ওপর কঠোর নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও ইউরোপ মস্কোর সঙ্গে যে পরিমাণ জ্বালানি-বাণিজ্য করছে, তার তুলনায় ভারতের বাণিজ্য একেবারেই কম। গত বছর রাশিয়া পশ্চিমাদের কাছে প্রতিদিন গড়ে ৪৩ লাখ ব্যারেল অপরিশোধিত তেল বিক্রি করেছিল। পশ্চিমাদের নিষেধাজ্ঞায় পড়া রাশিয়া এবার তেল বিক্রির জন্য ভারতের মতো বিকল্প বাজার না পেলে, বিশ্বে তেলের দাম আরও বাড়ত।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ইউক্রেন ঘিরে সংঘাত বিশ্বে বি-বিশ্বায়নের প্রবণতা কতটা প্রবল করেছে, ভারতের বর্তমান বিদেশনীতি তার একটা দৃষ্টান্ত। এখন যুক্তরাষ্ট্র ও এর মিত্ররা বনাম চীন ও এর প্রধান উপগ্রহ রাশিয়া বিশ্ব প্রধান দুই প্রতিদ্বন্দ্বী শিবিরে বিভক্ত। এ রকম দৃষ্টিভঙ্গির বাইরে বেরিয়ে বিদেশনীতির ক্ষেত্রে দীর্ঘদিন ধরে ‘কৌশলগত স্বাধিকারের ওপর জোর দিয়ে আসছে ভারত। দেশটির বর্তমান অবস্থান এ নীতিরই বহিঃপ্রকাশ।  

বিশেষজ্ঞদের মতে, যুদ্ধের নীতি থেকে নিজেদের দূরে রাখা এবং বিশ্ব পরিসরে বহুমাত্রিক সম্পর্কের মাধ্যমে সুবিধা আদায় করতেই এমন অবস্থান নিয়েছে ভারত।

news24bd.tv/FA