১৫ আগস্ট হত্যাকাণ্ডের মাধ্যমে বিএনপির জন্ম : আমু
১৫ আগস্ট হত্যাকাণ্ডের মাধ্যমে বিএনপির জন্ম : আমু

১৫ আগস্ট হত্যাকাণ্ডের মাধ্যমে বিএনপির জন্ম : আমু

আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য আমির হোসেন আমু বলেছেন, ৭৫ এর আগস্টের হত্যাকাণ্ড কোন পরিবারতান্ত্রিক ছিল না, ব্যক্তিকেন্দ্রিক ছিল না। এটা ছিল স্বাধীনতা সার্বভৌমত্বের বিরুদ্ধে। বর্তমান সময়ের সারাবিশ্ব মুখ থুবড়ে পড়েছে। আমাদের দেশ অর্থনীতি নির্ভর যে সমস্ত দেশ থেকে আমদানি করে তার প্রত্যেকটি দেশ আজ বিপন্ন।

১৫ আগস্ট হত্যাকাণ্ডের মধ্যদিয়ে বিএনপির জন্ম দাবি করে তিনি আরও বলেন, তা্দের নেতাকর্মীরা খালেদা জিয়ার চিকিৎসার নামে দেশে অরাজকতা সৃষ্টি করছে। বিএনপির ব্যাপারে প্রতিটি নেতাকর্মীকে সজাগ থাকতে হবে।

অভিযোগ করে আমু বলেন, হত্যাকাণ্ডের মধ্যদিয়ে বিএনপি এই দেশে আবার সাম্প্রদায়িকতার রাজনীতি পুনরুদ্ধার করতে চায়। তারা কোনদিন এই দেশের মঙ্গল চাইতে পারে না।

তারা কোনদিন বাংলাদেশের উন্নয়নকে ভাল চোখে দেখতে পারে না। তারা প্রত্যেকটি উন্নয়নকে প্রশ্নবিদ্ধ করার চেষ্টা করে। তার অর্থ দেশের এই উন্নয়ন তাদের সহ্য হয় না। তাদের গাত্রদাহ হয়।

বুধবার বিকেলে ঝালকাঠি শহরের সাধনার মোড়ে জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত জাতীয় শোক দিবসের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। তিনি আরও বলেন, বঙ্গবন্ধুকে হত্যার মাধ্যমে দেশকে ৪০ বছর পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে। শেখ হাসিনা অত্যন্ত পরিশ্রম করে সেই জায়গায় আনতে শুরু করেছে। ৭৫ আগস্টের ষড়যন্ত্র আজও অব্যাহত আছে। সুতরাং তারা কোনোভাবেই দেশের মঙ্গল চায় না। বাংলাদেশের উন্নয়নকে ভালো চোখে দেখতে পারে না। প্রত্যেকটি উন্নয়নকে প্রশ্নবিদ্ধ করার চেষ্টা করছে। আমু বলেন, বিএনপি ১৭ই আগস্ট দেশের ১৬৫টি স্থানে সিরিজ বোমা হামলা চালিয়েছে। এ ঘটনায় কাউকে আটক করা হল না, বিচার হল না।

জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সরদার মো. শাহ আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট খান সাইফুল্লাহ পনিরসহ আরও অনেকে।

news24bd.tv/FA