রিজার্ভ রক্ষায় ভুটানে গাড়ি আমদানিতে নিষেধাজ্ঞা
রিজার্ভ রক্ষায় ভুটানে গাড়ি আমদানিতে নিষেধাজ্ঞা

সংগৃহীত ছবি

রিজার্ভ রক্ষায় ভুটানে গাড়ি আমদানিতে নিষেধাজ্ঞা

অনলাইন ডেস্ক

ভুটানের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ উল্লেখযোগ্য পরিমাণে কমে আসায় শীঘ্রই দেশটি অর্থনৈতিক সংকটের মুখে পড়তে পারে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞদের একাংশ। ২০২১ সালের এপ্রিল মাস পর্যন্ত ভুটানের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ ছিল ১.৪৬ বিলিয়ন ডলার। কিন্তু ২০২১ সালের ডিসেম্বরের হিসাব অনুযায়ী তা এক ধাক্কায় কমে ৯৭০ মিলিয়ন ডলারে এসে দাঁড়িয়েছে। এদিকে বিদেশি মুদ্রার রিজার্ভ ধরে রাখতে গাড়ি আমদানির ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে দক্ষিণ এশিয়ার দেশটি।

স্থানীয় সময় শুক্রবার সরকারি এক নোটিশে এ নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়।

ওই নোটিশের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা রয়টার্সের খবরে বলা হয়, রিজার্ভ হ্রাস রোধে ইউটিলিটি যান বাদে বাকি সব ধরনের যানবাহন আমদানির ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে ভুটান, তবে দেশটি ভারী মাটি সরানোর যন্ত্র কিংবা কৃষি যন্ত্রপাতি আনার ওপর কোনো নিষেধাজ্ঞা দেয়নি।

আট লাখেরও কম জনসংখ্যাবিশিষ্ট ভুটানের অর্থনীতি অনেকটাই দাঁড়িয়ে আছে পর্যটন শিল্পের উপর ভিত্তি করে। কিন্তু জিরো-কোভিড নীতির কারণে গত দুই বছর যাবত প্রায় পর্যটনশূন্য ভুটান।

একই সাথে রাশিয়া-ইউক্রেন সংঘাতের কারণে আন্তর্জাতিক বাজারে গম এবং তেলের দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় সংকটের মুখে পড়েছে চীন ও ভারতের মাঝে অবস্থিত এই দেশটি।

ভুটানের অর্থ মন্ত্রণালয়ের নোটিশে বলা হয়, ১৫ লাখ গুলট্রামের কম মূল্যের ইউটিলিটি যান আমদানির অনুমোদন দেয়া হয়েছে। পাশাপাশি যেসব গাড়ি পর্যটনে ব্যবহার করা হয়, সেগুলোকেও নিষেধাজ্ঞার বাইরে রাখা হয়েছে।

এতে আরও বলা হয়, সাময়িক এ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে সামষ্টিক অর্থনৈতিক স্থিতিশীলতা বজায় রাখার জন্য প্রয়োজনীয় বৈদেশিক মুদ্রার সঞ্চয়ন নিশ্চিত করতে।

ভুটানের স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদন অনুযায়ী, গত বছরের জুন মাস থেকে ভুটান আট হাজারেরও বেশি বিদেশি গাড়ি আমদানি করেছে। বিদেশি মুদ্রা কমে আসার প্রধান কারণগুলো মধ্যে এটিও অন্যতম একটি কারণ বলে মনে করা হচ্ছে।

news24bd.tv/আলী