রাশিয়ার সার ও ইউক্রেনের খাদ্য নির্বিঘ্নে আসতে দিন : গুতেরেস
রাশিয়ার সার ও ইউক্রেনের খাদ্য নির্বিঘ্নে আসতে দিন : গুতেরেস

অ্যান্তোনিও গুতেরেস

রাশিয়ার সার ও ইউক্রেনের খাদ্য নির্বিঘ্নে আসতে দিন : গুতেরেস

অনলাইন ডেস্ক

ইউক্রেন বিশ্বের প্রধান খাদ্যশস্য রপ্তানিকারক দেশগুলোর অন্যতম। তবে গত ২৪ ফেব্রুয়ারি রাশিয়া ইউক্রেনে বিশেষ সামরিক অভিযান শুরু করার পর ইউক্রেনের শস্য রপ্তানি মারাত্মকভাবে বাধাগ্রস্ত হয়। এর ফলে বিশ্ব বাজারে খাদ্যপণ্যের ঘাটতি দেখা দেয়। তবে তুরস্ক ও জাতিসংঘের মধ্যস্থতায় রাশিয়া ও ইউক্রেনের মধ্যে এক সমঝোতা স্মারক সই হওয়ার পর ইউক্রেনের খাদ্যশস্য রপ্তানির পথ সুগম হয়।

রাশিয়ার খাদ্যদ্রব্য ও রাসায়নিক সার এবং ইউক্রেনের খাদ্যশস্য যাতে নির্বিঘ্নে বিশ্ব বাজারে আসতে পারে সে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য আন্তর্জাতিক সহযোগিতার আহ্বান জানিয়েছেন জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস।

স্থানীয় সময় শনিবার রাতে তুরস্কের ইস্তাম্বুল সফরকালে এ আহ্বান জানান তিনি।

বর্তমানে তুরস্ক কৃষ্ণসাগর দিয়ে ইউক্রেনের খাদ্যশস্য রপ্তানির চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। ‘বিশ্ব মানবতার জন্য অতি গুরুত্বপূর্ণ’ এ উদ্যোগ গ্রহণের জন্য তুরস্কের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান গুতেরেস।

তবে একই সঙ্গে তিনি বলেন, বিশ্ববাজারে খাদ্যদ্রব্যের দাম কমানোর জন্য রাশিয়ার খাদ্যদ্রব্য রপ্তানিরও উদ্যোগ নিতে হবে।

এর আগে, তুরস্ক সফরের আগে গুতেরেস ইউক্রেন সফরে যান এবং সেখানে প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কির পাশাপাশি সফররত তুর্কি প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোগানের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন।

রাশিয়া ইউক্রেনে সামরিক অভিযান শুরু করার পর এই প্রথম এরদোগান ইউক্রেন সফরে গেলেন। রাশিয়ার সম্মতিতে এবং তুরস্ক ও জাতিসংঘের তদারকিতে গত সপ্তাহ থেকে ইউক্রেনের খাদ্যশস্য রপ্তানি শুরু হয়েছে।

news24bd.tv/রিমু