১০ সন্তান নিলেই মিলবে খেতাব ও নগদ অর্থ! 
১০ সন্তান নিলেই মিলবে খেতাব ও নগদ অর্থ! 

সংগৃহীত ছবি

১০ সন্তান নিলেই মিলবে খেতাব ও নগদ অর্থ! 

ডেস্ক নিউজ

রাশিয়াতে এখন থেকে যে নারী ১০ বা তার চেয়ে বেশি সন্তান নেবেন তাঁকে দেয়া হবে মাদার হিরোইন খেতাব। পুরস্কার হিসেবে দেয়া হবে নগদ ১৬ লাখ টাকা। বেশি বেশি সন্তান জন্মদানে উৎসাহ দিতে এরিইমাঝে বিভিন্ন উদ্যোগ নিয়েছে চীন। শুধু রাশিয়া কিংবা চীন নয় বরং জনসংখ্যা হ্রাস যেন মাথা ব্যথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে জাপান, তাইওয়ান, অস্ট্রেলিয়া কিংবা দক্ষিণ কোরিয়ার মতো উন্নত বিশ্বের।

আধুনিক জীবন যাপনে আগ্রহী হয়ে পড়েছে মানুষ। ফলে সন্তান জন্মদানে অনীহা তৈরি হচ্ছে অনেকের মাঝে। এদিকে বিশ্বের অনেক দেশেই আশঙ্কাজনক হারে হ্রাস পাচ্ছে জনসংখ্যা। তবে উন্নয়নশীল বা নিম্ন আয়ের দেশে এর প্রভাব না পড়লেও উন্নত বিশ্বের সরকারগুলোর জন্য উদ্বেগের বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে।

মূলত রাশিয়ার জনসংখ্যা কয়েক দশক ধরেই কমছে। তবে ২০২১ সাল থেকে এই হার প্রায় দ্বিগুণে কমেছে। আর ২০২২ সালের শুরুতে জনসংখ্যা প্রায় চার লাখ কমে গিয়ে ১৪ কোটি ৫১ লাখে ঠেকেছে। ভ্লাদিমির পুতিন যখন ইউক্রেন সীমান্তে লাখো সেনা মোতায়ন করে তখনি এই সংকট টের পেয়েছে। যুদ্ধের ময়দানে পর্যাপ্ত সেনা পেতেও হিমশিম খেতে হয়েছে মস্কোকে।

পুতিনের স্বাক্ষরিত এক নতুন আদেশে বলা হয়েছে, এখন থেকে যে নারী ১০টি বা তার চেয়ে বেশি সন্তান নেবেন তাঁকে দেয়া হবে মাদার হিরোইন খেতাব।

এক সময়ের এক সন্তান নীতির দেশ চীনও পড়েছে একই সংকটে। এখন নারীদের তিন সন্তান জন্মের অনুমতি দেওয়া হলেও জনসংখ্যা বৃদ্ধিতে তা সহায়ক হয়নি। কাজের নিরাপত্তাহীনতার কারণে দেশটির নারীরা অধিক সন্তান নিতে আগ্রহী নন। বলা হচ্ছে, ২০২৫ সালের আগেই জনসংখ্যা আরও নিম্নমুখী হতে শুরু করবে।

সন্তান জন্মাদান হ্রাসের শীর্ষে রয়েছে সূর্যোদয়ের দেশ জাপান। ২০২১ সালে জাপানে ৮ লাখ ১১ হাজার ৬০৪টি শিশুর জন্ম হয়েছে, মারা গেছে ১৪ লাখ ৪০ হাজার মানুষ। এছাড়া হাঙ্গেরি, তাইওয়ান, অস্ট্রেলিয়া কিংবা দক্ষিণ কোরিয়াও একই সমস্যায় ভুগছে।

২১০০ সালের মধ্যে বিশ্বের জনসংখ্যা ২০০ কোটিরও বেশি হ্রাস পাবে বলে জানিয়েছেন গবেষকরা, তবে জনসংখ্যা বৃদ্ধির পরবর্তী জোয়ার তৈরি হবে আফ্রিকায়। উদাহরণস্বরূপ তারা বলছেন, ২০১৯ সালে নাইজারের নারীরা গড়ে ছয়টিরও বেশি সন্তান ধারণ করছেন।

news24bd.tv/রিমু