ওসি মনিরুলের সম্পদের অনুসন্ধানে দুদক
ওসি মনিরুলের সম্পদের অনুসন্ধানে দুদক

প্রতীকী ছবি

ওসি মনিরুলের সম্পদের অনুসন্ধানে দুদক

অনলাইন ডেস্ক

ঢাকার রমনা থানার ওসি মনিরুল ইসলামের বিরুদ্ধে অনিয়ম ও দুর্নীতির মাধ্যমে অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগ অনুসন্ধান করে দেখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

দুদকের আইনজীবী মো. খুরশীদ আলম খান রোববার (২১ আগস্ট) হাইকোর্টের শুনানিতে এ তথ্য জানালে আদালত তিন মাসের মধ্যে এ অনুসন্ধান শেষ করতে নির্দেশ দেয়। বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও খিজির হায়াতের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ নির্দেশ দিয়েছে দুদককে।

আদালতে রিটের পক্ষে ছিলেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন ও দুদকের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী মো. খুরশীদ আলম খান।

অন্যদিকে ওসি মুনিরুল ইসলামের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী মাহবুব শফিক।

এর আগে গত ৫ আগস্ট একটি জাতীয় পত্রিকায় রমনা থানার ওসির বিপুল সম্পদের বিষয়ে সংবাদ প্রকাশিত হয়। প্রতিবেদনটিতে রাজধানীতে একটি আটতলা বাড়ি-প্লটসহ বিপুল সম্পদের মালিক ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) রমনা থানার ওসি মনিরুল ইসলামের বিপুল সম্পদের তথ্য তুলে ধরা হয়।

পরে গত ৮ আগস্ট প্রতিবেদনটি হাইকোর্টের নজরে এনে এ বিষয়ে পদক্ষেপ ও তদন্তের নির্দেশনা চান ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন।

এ সময় তিনি ওসির সম্পদের উৎস কী তা জানতে চেয়ে দুদককে তদন্ত করার দায়িত্ব দিতে আবেদন করেন।

তখন আদালত বিষয়টি আবেদন (রিট) আকারে নিয়ে আসতে বলেন। এরই ধারাবাহিকতায় হাইকোর্টে রিট দায়ের করা হয়। রিটের শুনানি নিয়ে ওসির বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ দুদককে জানাতে নির্দেশ দেন হাইকোর্ট। এরপর দুদককে আনুষ্ঠানিকভাবে অভিযোগ দিলে তারা এ বিষয়ে অনুসন্ধান করবেন হাইকোর্টকে জানান।

news24bd.tv/মামুন