রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ পদে বঙ্গবন্ধুর খুনিদের ঘাপটি মারা নিয়ে উদ্বেগ
রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ পদে বঙ্গবন্ধুর খুনিদের ঘাপটি মারা নিয়ে উদ্বেগ

রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ পদে বঙ্গবন্ধুর খুনিদের ঘাপটি মারা নিয়ে উদ্বেগ

নিজস্ব প্রতিবেদক

পঁচাত্তরের ১৫ আগস্টের ধারাবাহিকতায় একুশে আগস্ট শিরোনামে আলোচনার আয়োজন করে সম্প্রীতি বাংলাদেশ। জাতীয় প্রেসক্লাবে এই আলোচনায় বক্তারা রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ পদে ঘাপটি মেরে থাকা মানুষগুলোকে নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেন।

পঁচাত্তর এর ১৫ আগস্ট, জেল হত্যা ও একুশে আগস্টের তদন্ত কর্মকর্তা আবদুল কাহহার আকন্দ বলেন, রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের নির্দেশে ২১ আগস্টের মামলাকে শুরুতে উল্টো ভাবে পরিচালিত করা হয়েছে।

সভায় আরও বক্তব্য রাখেন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ড হারুন অর রশিদ, নিরাপত্তা বিশ্লেষক মোহাম্মদ আলী সিকদারসহ অনেকেই।

তারা বলেন, পাকিস্তানী পরাজিত শক্তির দোসররা বিভিন্ন ইসলামিক গোষ্ঠী ও রাজনৈতিক অভ্যন্তরীণ শত্রুরা সম্মিলিতভাবেই বঙ্গবন্ধু হত্যার পেছনে কাজ করেছে। তারা বলেন, তৎকালীন ক্ষমতাসীন দলের সুপরিকল্পিত পরিকল্পনায় একুশে আগস্টের পৈশাচিক হত্যাকাণ্ড হয়েছে।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে আওয়ামী লীগের সভাপতি মণ্ডলের সদস্য মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বলেন, ১৫ আগস্ট, তেসরা নভেম্বর ও ২১ আগস্টের মূল পরিকল্পনাকারী জিয়া পরিবার। এসময় মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসীদের সতর্ক ও ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বান জানান বক্তারা।

news24bd.tv/FA