তিন ফসলী কৃষিজমি রক্ষায় উঠান বৈঠক ও ধান রোপণ কর্মসূচি
তিন ফসলী কৃষিজমি রক্ষায় উঠান বৈঠক ও ধান রোপণ কর্মসূচি

সংগৃহীত ছবি

তিন ফসলী কৃষিজমি রক্ষায় উঠান বৈঠক ও ধান রোপণ কর্মসূচি

অনলাইন ডেস্ক

মোংলা বন্দরের পশুর চ্যানেল পশ্চিম পাড় দাকোপের বাণীশান্তা এলাকায় কৃষি বাঁচাও, কৃষক বাঁচাও,দেশ বাঁচাও’ শ্লোগানে উঠান বৈঠকের আয়োজন করেছে বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা) ও বাণীশান্তা ইউনিয়ন কৃষিজমি রক্ষা সংগ্রাম কমিটি। সোমবার (২২ আগস্ট) সকাল সাড়ে ১১ টায় কৃষিজমি রক্ষার দাবীতে বাণীশান্তা ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকায় কৃষকদের চলমান আমন ধান রোপণে সংহতি কর্মসূচি পালন করা হয়।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বাপা নেতা ও কৃষিজমি রক্ষা সংগ্রাম কমিটির সংগঠক কৃষ্ণপদ মন্ডল। প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলনের (বাপা) কেন্দ্রিয় নেতা মো. নূর আলম শেখ।

অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বাণীশান্তা ইউনিয়ন কৃষিজমি রক্ষা সংগ্রাম কমিটির নেতা সত্যজিৎ গাইন, হিরন্ময় রায়, মনোজিত কুমার দেব, সঞ্জিব মন্ডল, কৃষাণী ইউপি সদস্য পাপিয়া মিস্ত্রি, জয় কুমার মানিক, বাপা নেতা হাছিব সরদার, কৃষাণী বৈশাখী মন্ডল সহ অনেকে।

বক্তারা বলেন, ‘বালু ফেলার বহু বিকল্প থাকা সত্ত্বেও মোংলা বন্দরের কতিপয় অসাধু কর্মকর্তার টার্গেট হচ্ছে বাণীশান্তার তিনশো একর তিনফসলি কৃষিজমি দখল করা যা দুঃখজনক। যেকোন মূল্যে কৃষিজমি ধ্বংসের ষড়যন্ত্র বাণীশান্তার কৃষকরা প্রতিহত করবে।  জান দেবো তবু কৃষিজমিতে পশুর নদী ড্রেজিংয়ের বালু ফেলতে দেবো না।

এ সময় বক্তারা আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বার বার কৃষিজমি রক্ষার তাগিদ দিয়েছেন। তা সত্ত্বেও পশুর নদী ড্রেজিংয়ের প্রকল্পের সাথে যুক্ত কতিপয় কর্মকর্তা তা উপেক্ষা করছে। বক্তারা বাণীশান্তার তিনশো একর তিনফসলি কৃষিজমিকে মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষ ড্রেজিং প্রকল্পে অনাবাদি এবং ডোবা হিসেবে উল্লেখের মাধ্যমে বার বার মিথ্যাচার করছে।  

বাপা ও কৃষিজমি রক্ষা সংগ্রাম কমিটির নেতৃবৃন্দ আমন ধান রোপণের ভরা মৌসুমের চলমান কর্মসুচিতে অংশগ্রহণ করে কৃষকদের সাথে সংহতি প্রকাশ করেন।  এরপর বাণীশান্তা গ্রামে বাপা আয়োজিত উঠানবৈঠকে অংশগ্রহণ করেন। এখানে সভাপতিত্ব করেন ইউপি সদস্য কৃষক নেত্রী পাপিয়া মিস্ত্রি। উঠান বৈঠকে বক্তারা কৃষিজমি রক্ষার চলমান আন্দোলনকে শান্তিপূর্ণ এবং নিয়মতান্ত্রিক ভাবে পরিচালনা করার আহ্বান জানান।

news24bd.tv/desk