রেললাইন নির্মাণে ভারতীয় প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে দুই চুক্তি সই
রেললাইন নির্মাণে ভারতীয় প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে দুই চুক্তি সই

সংগৃহীত ছবি

রেললাইন নির্মাণে ভারতীয় প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে দুই চুক্তি সই

অনলাইন প্রতিবেদক

বাংলাদেশ রেলওয়ের পার্বতীপুর থেকে কাউনিয়া পর্যন্ত মিটার গেজ রেললাইনকে ডুয়েল গেজে রূপান্তর এবং খুলনা-দর্শনা সেকশনে ব্রডগেজ রেললাইন নির্মাণ প্রকল্পের কনসালটেন্সি সার্ভিসের জন্য ভারতীয় প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে দুটি চুক্তি সই করা হয়েছে। ভারতীয় এলওসির ( লাইন অফ ক্রেডিট) অর্থায়নে প্রকল্প দুটি সম্পন্ন হবে।  

বৃহস্পতিবার (২৫ আগস্ট) রাজধানীর রেল ভবনে এসব চুক্তি সই হয়। প্রকল্প দুটি ভারত সরকারের দ্বিতীয় লাইন অফ ক্রেডিট (LOC)-এর অধীনে বাংলাদেশ সরকারকে দেওয়া ২ বিলিয়ন ডলার রেয়াতি ঋণের সহায়তায় করা হচ্ছে।

 

কনসালটেন্সি সার্ভিসের জন্য দুই ভারতীয় প্রতিষ্ঠান স্টুপ কনসালট্যান্ট প্রাইভেট লিমিটেড, আরভি অ্যাসোসিয়েটস আর্কিটেক্টস ইঞ্জিনিয়ার্স অ্যান্ড কনসালট্যান্টস প্রাইভেট লিমিটেড এবং ডিজাইন কনসালটেন্টস লিমিটেডের যৌথ উদ্যোগে চুক্তি করা হয়েছে।

খুলনা-দর্শনা রেললাইন প্রকল্পটি ৩১২.৪৮ মিলিয়ন মার্কিন ডলার ব্যয়ে বাস্তবায়িত হচ্ছে। এই রেললাইনের মোট দৈর্ঘ্য হল ১২৬.২৫ কিলোমিটার। এই প্রকল্পটি খুলনা-ঢাকা, খুলনা-চিলাহাটি, খুলনা-রাজশাহী রুটে এবং মংলা বন্দর ও দর্শনার মধ্যে যোগাযোগকে উন্নত করার পাশাপাশি পণ্য পরিবহনের ক্ষমতা বৃদ্ধি করবে।

এটি হরিয়ান, ভেড়ামারা, সান্তাহার, বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম স্টেশন, আমানুরা, ফরিদপুর, ঠাকুরগাঁও এবং রংপুরে প্রস্তাবিত জ্বালানি ভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্রসমূহে জ্বালানি পরিবহনকে সহজ করে দেবে।

পার্বতীপুর-কাউনিয়া রেললাইন প্রকল্প মোট ১২০.৪১ মিলিয়ন মার্কিন ডলার ব্যয়ে বাস্তবায়িত হচ্ছে। এই প্রকল্পের লক্ষ্য হল পার্বতীপুর এবং কাউনিয়া জংশনের মধ্যে ৫৭ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের একটি ডুয়েল গেজ রেলপথ নির্মাণ করা। এর মাধ্যমে বাংলাদেশ রেলওয়ের সক্ষমতা বৃদ্ধি পাবে ও লাইনের পরিবহন ক্ষমতার উন্নয়ন ঘটবে। এটি বিরল সীমান্ত দিয়ে আন্তঃসীমান্ত যাতায়াত সহজ করতেও সহায়তা করবে। এছাড়াও এই প্রকল্পের কাজ শেষ হলে খুলনা অঞ্চল থেকে সরাসরি রংপুর বিভাগে জ্বালানি পরিবহন করা যাবে।

news24bd.tv/আজিজ