‘রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনের পরিবেশ তৈরি মিয়ানমারের দায়িত্ব’
‘রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনের পরিবেশ তৈরি মিয়ানমারের দায়িত্ব’

‘রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনের পরিবেশ তৈরি মিয়ানমারের দায়িত্ব’

নাহিদ হোসেন

রোহিঙ্গাদের নিরাপদ প্রত্যাবাসনের পরিবেশ তৈরি করা মিয়ানমারেরই দায়িত্ব বলে মন্তব্য করেছেন ঢাকা সফররত জাতিসংঘের মিয়ানমার বিষয়ক বিশেষ দূত নুলেন হেজার। রাজধানীর বেইলি রোডে ফরেন সার্ভিস একাডেমিতে সেমিনারে তিনি বলেন, বাংলাদেশ রোহিঙ্গা ইস্যুতে চূড়ান্ত মানবিকতা দেখিয়েছে। সেমিনারে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের প্রস্তুতি থাকলেও মিয়ানমারের অসহযোগিতায় পাঁচ বছরেও তা সম্ভব হয়নি।

বৃহস্পতিবার রোহিঙ্গা গণহত্যা ও দশ লাখের বেশি রোহিঙ্গার বাংলাদেশে অনুপ্রবেশের পঞ্চম বর্ষপূর্তিতে সেমিনারের আয়োজন করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জেনোসাইড স্টাডিজ বিভাগ।

এতে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিশ্লেষক ড. ইমতিয়াজ আহমেদ। ঢাকায় নিযুক্ত একাধিক দেশের রাষ্ট্রদূত আঞ্চলিক স্থিতিশীলতার প্রয়োজনে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের গুরুত্ব তুলে ধরেন।

জাতিসংঘের মিয়ানমার বিষয়ক বিশেষ দূত তার বক্তব্যে বলেন, রোহিঙ্গাদের নিরাপদ প্রত্যাবাসনের পরিবেশ তৈরি করা মিয়ানমারেরই দায়িত্ব।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, মিয়ানমারের অসহযোগিতার কারণেই পাঁচ বছরে প্রত্যাবাসন সম্ভব হয়নি।

এজন্য আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে জোটবদ্ধ ভূমিকা রাখার আহ্বান জানান মন্ত্রী।

মন্ত্রী জানান, সম্প্রতি সংখ্যায় অল্প হলেও মিয়ানমার প্রত্যাবাসনে আগ্রহ দেখিয়েছে। চলছে আলোচনাও।

news24bd.tv/তৌহিদ