কুষ্টিয়ায় ট্রেনে কাটা পড়ে শিশুর হাত বিচ্ছিন্ন, মা আহত
কুষ্টিয়ায় ট্রেনে কাটা পড়ে শিশুর হাত বিচ্ছিন্ন, মা আহত

কুষ্টিয়ায় ট্রেনে কাটা পড়ে শিশুর হাত বিচ্ছিন্ন, মা আহত

জাহিদুজ্জামান, কুষ্টিয়া :

কুষ্টিয়ায় ট্রেনে কাটা পড়ে সুরভি (০৫) নামে এক শিশুর বাম হাত শরীর থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। একই সঙ্গে শিশুটির মা সুমি (৩০) গুরুতর আহত হয়েছেন। হাসপাতালে নেওয়ার পর তার পা কেটে ফেলতে হয়েছে। আজ শনবিার সকাল ৮টার দিকে হরিশংকরপুর ধোপাপাড়া এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

 

আহত সুমি খাতুন কুষ্টিয়া শহরের হাউজিং এস্টেট এলাকায় সি ব্লকের সাপ্পী ইসলামের স্ত্রী। ১২ বছর আগে কুষ্টিয়া সদর উপজেলার দহকুলা গ্রামের সুমির সঙ্গে সাপ্পীর বিয়ে হয়। তাদের ৮ বছর বয়সী এক ছেলে ও এক মেয়ে সন্তান রয়েছে।  

আহতের স্বজনরা জানান, স্বামীর সঙ্গে সুমির প্রায়ই ঝগড়া হতো।

আজ শনিবার সকালে পারিবারিক কলহের জেরে সুমি তার ৫ বছর বয়সী মেয়ে সুরভিকে নিয়ে ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। এ সময় শিশুটির বাম হাত কনুইয়ের নিচ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। এছাড়া মা ও শিশুটির শরীরের বিভিন্ন জায়গায় গুরুতর জখম হয়। স্থানীয়রা মা-মেয়েকে উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে।  

হাসপাতালে গিয়ে দেখা যায়, শিশুটির বিচ্ছিন্ন হওয়া বাম হাতের ক্ষত স্থানসহ বিভিন্ন জায়গায় ব্যান্ডেজ করা হয়েছে।  এবং মায়েরও হাত-পা, মাথাসহ শরীরের বিভিন্ন জায়গায় ব্যান্ডেজ করা হয়েছে।  

পোড়াদহ রেলওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মনজের আলী বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, সকাল ৮টার দিকে কুষ্টিয়া শহরের হরিশংকরপুর এলাকায় ফরিদপুর থেকে ছেড়ে আসা দর্শনাগামী মালবাহী ট্রেনে দুর্ঘটনাটি ঘটে।  

news24bd.tv/কামরুল