মোংলায় গৃহবধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার, স্বামী গ্রেপ্তার
মোংলায় গৃহবধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার, স্বামী গ্রেপ্তার

মোংলায় গৃহবধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার, স্বামী গ্রেপ্তার

বাগেরহাট প্রতিনিধি

বাগেরহাটের মোংলায় এক গৃহবধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় পুলিশ ওই গৃহবধূর স্বামীকে গ্রেপ্তার করেছে। শনিবার সকালে মোংলা পৌরসভার মাদ্রাসা রোডের স্বামী মহসিন খাঁনের বাসা থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় গৃহবধূ বর্নালীর (২০) লাশ উদ্ধার করা হয়।

নিহত বর্নালীর জমজ বোন বাবলী (২০) ও বড় বোন সুইটি (২৩) বলেন, পরিবারের অমতে গোপনে বিয়ে করে মহসীন ও বর্নালী।

মহসিনের আগের বউ আছে। তারপরও ৪ মাস আগে আমাদের বোনকে ফুসলিয়ে ও ভয়ভীতি দেখিয়ে বিয়ে করে মহসিন। মহসিন আমাদের বোন বর্নালীকে নিয়ে পৌর শহরে ভাড়া বাড়িতে থাকতো। আর প্রায়ই বর্নালীকে মারধর করতো মহসিন।
কিছুদিন আগেও মহসিন আমাদের বোন বর্নালীকে মারধর করে মাথা ফাটিয়ে দেয়।

তারা আরও জানান, সম্প্রতি বর্নালী ও মহসিনের একসাথের ছবি ফেসবুকে আপলোড করে বর্নালী। এ নিয়ে মহসিনের আগের স্ত্রীর সাথে মহসিনের ঝগড়া হয়। সেই রাগে মহসিন শনিবার আমাদের বোন বর্নালীর সাথে ঝগড়া করে ঘরে আটকে রেখে চলে আসেন। মহসিন আমাদের বোনকে মেরে ঝুলিয়ে রেখে ঘরের দরজা আটকে রেখে বাহিরে চলে আসেন, নাকি ঝগড়ার কারণে রাগ করে আত্মহত্যা করেছেন তাতো বলতে পারছি না। তবে এ ঘটনার জন্য মহসিনই পুরোপুরি দায়ী। আমরা এর সঠিক বিচার চাই।

বর্নালীর মা গোলজান বিবি (৫৫) বলেন, আমার মেয়েকে হত্যা করেছে মহসিন, আমি মহসিনের বিচার চাই।

মোংলা-রামপাল সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মো. আসিফ ইকবাল জানান, প্রাথমিকভাবে মনে হয়েছে এটি আত্মহত্যা, কারণ শরীরের কোথাও কোন আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি। গৃহবধূ বর্নালীর আত্মহত্যার প্ররোচণাকারী হিসেবে স্বামী মহসিনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তারপরও বিয়ে ও এ আত্মহত্যার ঘটনা নিয়ে পরিবারসহ এলাকাবাসীর ভিন্নমত থাকায় লাশের ময়নাতদন্ত শেষে পরবর্তীতে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

news24bd.tv/FA

এই রকম আরও টপিক