প্রস্তুতি প্রদর্শনে যুক্তরাষ্ট্রের ব্যালেস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা
প্রস্তুতি প্রদর্শনে যুক্তরাষ্ট্রের ব্যালেস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা

সংগৃহীত ছবি

প্রস্তুতি প্রদর্শনে যুক্তরাষ্ট্রের ব্যালেস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা

অনলাইন ডেস্ক

এক মাসেরও কম সময়ের মধ্যে দ্বিতীয়বার আন্তঃমহাদেশীয় ব্যালেস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালাল যুক্তরাষ্ট্রের সেনারা। বুধবার ক্যালিফোর্নিয়া থেকে চালানো মিনিটম্যান-৩ নামের আন্তঃমহাদেশীয় ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা সফল হয়েছে বলে দাবি ওয়াশিংটনের।

পারমাণবিক ইস্যুতে প্রস্তুতি প্রদর্শনেই যুক্তরাষ্ট্রের এই পদক্ষেপ। ফক্স নিউজের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

যুক্তরাষ্ট্রের বিমান বাহিনী এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, ক্যালিফোর্নিয়ার ভেন্ডেনবার্গ স্পেস ঘাঁটি থেকে বাহিনীর গ্লোবাল স্ট্রাইক কমান্ড এই ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালায়। তবে পরীক্ষায় পরমাণু অস্ত্র (ওয়্যারহেড) না থাকলেও সংঘাতের সময়  ওয়্যারহেড থাকতে পারে। যুক্তরাষ্ট্রের বিমানবাহিনী এর আগে গত ১৬ আগস্ট এই ধরনের ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালিয়েছিল।

প্রতিবেদনে বলা হয়, সান্তা বারবারার থেকে প্রায় ৬০ মাইল উত্তরে ক্যালিফোর্নিয়ার ভ্যানডেনবার্গ স্পেস ফোর্স বেস থেকে স্থানীয় সময় দুপুর ১টা ১৩ মিনিটের দিকে অপারেশনাল পরীক্ষা শুরু হয়।

বিমান বাহিনীর ব্রিগেডিয়ার জেনারেল প্যাট রাইডার প্রথম মঙ্গলবার পেন্টাগন থেকে ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার ঘোষণা দেন। এসময় তিনি বলেন, এই আন্তঃমহাদেশীয় ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণের মাধ্যমে সিস্টেমের কার্যকারিতা ও প্রস্তুতি যাচাই করা হবে। তিনি বলেন, এই উৎক্ষেপণটি নিয়মিত পরীক্ষার অংশ, যা অনেক আগেই নির্ধারিত ছিল। তাছাড়া এটি পূর্ববর্তী পরীক্ষার সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ।

রাইডার বলেন, যুক্তরাষ্ট্র অপারেশনাল পরীক্ষার আগে চুক্তির বাধ্যবাধকতার জন্য রাশিয়ান সরকারকে অবহিত করেছে। হেগের আন্তর্জাতিক আচরণবিধি অনুসারে উৎক্ষেপণের বিষয়টি আগেই জানানো হয়।

news24bd.tv/সাব্বির