জলবায়ু পরিবর্তন: আগস্টে রেকর্ড উষ্ণ ছিল ইউরোপ
জলবায়ু পরিবর্তন: আগস্টে রেকর্ড উষ্ণ ছিল ইউরোপ

সংগৃহীত ছবি

জলবায়ু পরিবর্তন: আগস্টে রেকর্ড উষ্ণ ছিল ইউরোপ

অনলাইন ডেস্ক

জলবায়ু পরিবর্তনে ভুগছে গোটা বিশ্ব।  ইউরোপজুড়ে দেখা দিয়েছে তীব্র তাপদাহ, খরা, দাবানলসহ বিভিন্ন প্রাকৃতিক দুর্যোগ। গত গ্রীষ্মে ব্যাপক উষ্ণতা দেখেছে গোটা অঞ্চলটি। আর এ সময়েই রেকর্ড উষ্ণ ছিল ইউরোপ।

 

ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) স্যাটেলাইট পর্যবেক্ষণের বরাতে এ তথ্য জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদ মাধ্যম বিবিসি।

প্রতিবেদনে বিবিসি জানায়, গত গ্রীষ্মে রেকর্ড উষ্ণ ছিল ইউরোপ। জুন, জুলাই ও আগস্টে তীব্র তাপদাহ দেখেছে অঞ্চলটি। আর আগস্টের উষ্ণতা পূর্ববর্তী রেকর্ড ভেঙেছে।

ইউরোপে জলবায়ু নিয়ে কাজ করা কোপার্নিকাস জানিয়েছেন, ইউরোপে আগস্ট মাস ছিল রেকর্ড উষ্ণ। উষ্ণতায় অন্য মাসের তুলনায় যথেষ্ট এগিয়ে রয়েছে মাসটি।

গবেষকরা বলছেন, বিশ্বব্যাপী তৃতীয় সর্বোচ্চ উষ্ণতম মাস ছিল গত আগস্ট।

কোপার্নিকাসের দেওয়া তথ্য মতে, চলতি বছরের পুরো গ্রীষ্ম ও আগস্ট মাস উষ্ণতার রেকর্ড ভেঙেছে। গত বছরের একই সময়ের রেকর্ড উষ্ণতার তুলনায় তাপমাত্রা বেড়েছে শূন্য দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আর ২০১৮ সালের আগস্ট থেকে বেড়েছে শূন্য দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

কোপার্নিকাসের সিনিয়র বিজ্ঞানী ফ্রেজা ভ্যামব্রোগ বলেন, ‘লাগাতার কয়েকটি তাপদাহের ফলে ইউরোপজুড়ে শুষ্কতা দেখা গেছে। ইউরোপের অনেক অংশে তাপমাত্রা, খরা ও দাবানলের মতো ঘটনা ঘটেছে। এসব জিনিস গ্রীষ্মের তাপমাত্রা রেকর্ডের দিকে নিয়ে গেছে। এতে সমাজ ও পরিবেশের বিভিন্ন দিক থেকে ক্ষতি হয়েছে। ’

গত ১৯ জুলাই যুক্তরাজ্যের লিঙ্কনশায়ারের কনিংসবিতে ৪০ দশমিক ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড হয়। এর আগে ২০১৯ সালে দেশটিতে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড হয়। ওই সময় তাপমাত্রা ছিল ৩৮ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। তবে তিন বছরের ব্যবধানে তাপমাত্রা বেড়েছে এক দশমিক ৬ ডিগ্রি।  

গ্রীষ্মে ইউরোপের অন্যান্য দেশেও উচ্চ তাপমাত্রা দেখা যায়। এর মধ্যে ফ্রান্সের ৬৪টি স্থানে রেকর্ড তাপমাত্রা দেখা গেছে। অন্যদিকে গত জুলাইয়ে পর্তুগালে সর্বোচ্চ ৪৭ ডিগ্রি তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়।

এই গ্রীষ্মে খরার সম্মুখীন হয়েছে ইউরোপ; যেটি ছিল ৫০০ বছরের মধ্যে সবচেয়ে খারাপ। এমনকি তীব্র তাপদাহে চীনেও খরা দেখা দেয়।

news24bd.tv/মামুন