বাগেরহাটে বেড়িবাঁধ ভেঙে পানি ঢুকেছে লোকালয়ে
বাগেরহাটে বেড়িবাঁধ ভেঙে পানি ঢুকেছে লোকালয়ে

বাগেরহাটে বেড়িবাঁধ ভেঙে পানি ঢুকেছে লোকালয়ে

বাগেরহাট প্রতিনিধি

বাগেরহাট সদরের বারুইপাড়া ইউনিয়নের বাকপুরায় পানি উন্নয়ন বোর্ডের বেড়িবাঁধ ভেঙে লোকালয়ে ঢুকেছে পানি। এতে প্লাবিত হয়েছে বহু গ্রাম। মঙ্গলবার (১৩ সেপ্টেম্বর) জেলার নদ-নদীর পানি বিপদ সীমার দেড় ফুট উপর দিয়ে প্রবাহিত হয়। মংলায় সড়ক বিভাগের ফেরিঘাটের পন্টুন প্রায় ৪ ফুট পানিতে তলিয়ে গেছে।

 

জানা যায়, বেড়িবাঁধ ভেঙে যাওয়ায় বাগেরহাট জেলার নিন্মাঞ্চলের শতাধিক গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। এতে কয়েক হাজার মানুষ পানিবন্দী হয়ে পড়েছে। অনেক দোকানপাট ও ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানেও ঢুকে পড়েছে পানি। জলোচ্ছ্বাসের কারণে নদ-নদী উত্তাল থাকায় কোস্ট গার্ড মাইকিং করে সবাইকে সতর্ক করছেন।

জলোচ্ছ্বাসে সুন্দরবনও তলিয়ে গেছে। গতকাল চাঁদপাই রেঞ্জের করমজল বন্যপ্রাণী প্রজনন ও ট্যুরিজম কেন্দ্রটি প্রায় ৩ ফুট পানির নিচে তলিয়ে যায়। সুন্দরবনের প্রাণ ও প্রকৃতি রক্ষায় জারি করা হয়েছে সর্বোচ্চ সতর্কতা। এই অবস্থায় বাঘ, হরিণসহ ৩৭৫ প্রজাতির বন্যপ্রাণী রক্ষায় সার্বক্ষণিক সজাগ থাকতে বন কর্মকর্তাদের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।  

এদিকে মঙ্গলবার ভোর থেকে সারাদিন টানা বৃষ্টিপাত হয়েছে। এতে বেশি বিপাকে পড়েন দিন মজুররা। দিনভর ভারী বৃষ্টিপাতের কারণে মংলা বন্দরে অবস্থানরত ১৪টি বিদেশী বাণিজ্যিক জাহাজের পণ্য খালাস মারাত্মকভাবে ব্যাহত হয় বলে জানায় বন্দরের হারবার বিভাগ।

সুন্দরবনের চাঁদপাই রেঞ্জের সহকারী বন সংরক্ষক (এসিএফ) মো. শহিদুল ইসলাম হাওলাদার জানান, জলোচ্ছ্বাসে এখনো সুন্দরবন তলিয়ে রয়েছে। গতকাল চাঁদপাই রেঞ্জের করমজল বন্যপ্রাণী প্রজনন ও ট্যুরিজম কেন্দ্রটি প্রায় ৩ ফুট পানির নিচে তলিয়ে ছিল। বৈরী আবহাওয়ার কারণে কয়েক শত ফিশিং ট্রলার সুন্দরবনের বিভিন্ন ছোট খালে আশ্রয় নিয়েছে। আশ্রয়ে থাকা এসব ট্রলার ও জেলেদের নিরাপত্তার জন্য বন বিভাগের কর্মকর্তা নিয়োজিত রয়েছেন।

মংলা কোস্ট গার্ড পশ্চিম জোনের সদর দপ্তরের স্টাফ অফিসার (অপারেশন্স) লেফটেনেন্ট কমান্ডার মেসবাহ উদ্দিন জানান, পানি বেড়ে নদ-নদী উত্তাল থাকায় কোস্ট-গার্ডের পক্ষ থেকে মাইকিং করে সবাইকে সতর্ক করা হচ্ছে। এছাড়া এবার জেলেদের নিরাপদে সরিয়ে আনা সম্ভব হয়েছে। কোস্ট গার্ড সতর্কতার সঙ্গে টহল অব্যাহত রেখেছেন।  

মংলা আবহাওয়া অফিসের প্রধান আবহাওয়াবিদ অমরেশ চন্দ্র ঢালী বলেন, নিম্নচাপের প্রভাবে বুধবারও সাগর এবং সুন্দরবন উপকূলে জলোচ্ছ্বাস দেখা যেতে পারে। সঙ্গে ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে।


news24bd.tv/হারুন