বাগেরহাটে ভেসে গেছে ৮ হাজারের বেশি ঘের
বাগেরহাটে ভেসে গেছে ৮ হাজারের বেশি ঘের

বাগেরহাট প্রতিনিধি    

বাগেরহাটে ভেসে গেছে ৮ হাজারের বেশি ঘের

বাগেরহাট প্রতিনিধি        

টানা চারদিনের ভারী বৃষ্টিপাত এবং জলোচ্ছ্বাসে বাগেরহাটে ৮ হাজারের বেশি ঘের ভেসে গেছে। এতে মাছ চাষীদের ক্ষতি হয়েছে কমপক্ষে ৪ কোটি টাকা। শুধু মোংলার ৪টি ইউনিয়নেই ১ হাজার ৯২০টি মাছের ঘেরের বাঁধ ভেঙে কোটি টাকার বেশি মাছ ভেসে গেছে। আজ বুধবার জেলা মৎস্য বিভাগের প্রাথমিক হিসাব থেকে জেলার ৯টি উপজেলায় এ ক্ষতি হয়েছে বলে জানা গেছে।

 

এদিকে আগামীকাল বৃহস্পতিবার দুপুর পর্যন্ত বৃষ্টি হতে পারে বলে জানিয়েছে মোংলা আবহাওয়া অফিস।

জানা যায়, বাগেরহাটের নদ-নদীর পানি এখনও বিপদ সীমার দেড় ফুট উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। আজও বাগেরহাটে বৃষ্টিপাত আর জোয়ারের পানি অব্যাহত থাকায় ভোগান্তিতে পড়েছেন শতশত পানিবন্দী পরিবার। অনেক দোকানপাট ও ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান পানিতে প্লাবিত রয়েছে।

সব থেকে কষ্টে আছেন খেটে খাওয়া মানুষ। জলোচ্ছ্বাসের কারণে এখনও ২ থেকে ৩ ফুট পানিতে তলিয়ে রয়েছে সুন্দরবন।  

বাগেরহাট জেলা মৎস্য কর্মকর্তা এ এস এম রাসেল জানান, প্রাথমিক হিসাবে চারদিনের ভারী বৃষ্টিপাত এবং জলোচ্ছ্বাসে জেলার ৯টি উপজেলায় বাঁধ ভেঙে ৮ হাজারের বেশি মাছের ঘের ভেসে গেছে। এতে কমপক্ষে ৪ কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে। এরমধ্যে মোংলা ৪টি ইউনিয়নেই ১ হাজার ৯২০টি মাছের ঘেরের মালিক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন। মাঠ পর্যায়ে ক্ষতিগ্রস্ত মাছ চাষীদের তালিকা করা হচ্ছে। দু’এক দিনের মধ্যে তালিকা করার কাজ শেষ করা গেলে ক্ষতির পরিমাণ জানা যাবে।  

এদিকে মোংলা আবহাওয়া অফিসের প্রধান আবহাওয়াবিদ অমরেশ চন্দ্র ঢালী জানান, নিন্মচাপ ও পূর্ণিমার কারণে বৃহস্পতিবার দুপুর পর্যন্ত বৃষ্টি অব্যাহত থাকবে। বিকেল থেকে জলোচ্ছ্বাসের কোনো সম্ভাবনা থাকবে না। তখন দ্রুতই নদ-নদীর পানি কমতে থাকবে।   

news24bd.tv/হারুন