‘শয়তানের নিঃশ্বাস’ ছড়িয়ে ‌হাতিয়ে নেয়া হচ্ছে সব
‘শয়তানের নিঃশ্বাস’ ছড়িয়ে ‌হাতিয়ে নেয়া হচ্ছে সব

স্কোপোলামিন ফুল ও পাউডার

‘শয়তানের নিঃশ্বাস’ ছড়িয়ে ‌হাতিয়ে নেয়া হচ্ছে সব

অনলাইন ডেস্ক

ভয়ংকর মাদক স্কোপোলামিন। অপরাধ জগতে যার পরিচিত 'ডেভিলস ব্রেথ' বা 'শয়তানের শ্বাস' নামে। পাশ্চাত্যের এই ভয়ংকর মাদক এখন দেশের সংঘবদ্ধ অপরাধী চক্রের হাতে। তাদের টার্গেট হয়ে স্বেচ্ছায় নিজেদের মূল্যবান মালামালসহ টাকা পয়সা হারাতে হচ্ছে সাধারণ মানুষকে।

ফরিদপুরের মতো মফস্বল জেলা শহরেও এদের দৌরাত্ম বৃদ্ধি পাওয়ায় উদ্বিগ্ন 
এসব এলাকার সাধারণ মানুষ।  

ফরিদপুর শহরের ষাটোর্ধ্ব আলেয়া বেগম তার অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্য স্বামীকে নিয়ে ব্যাংক থেকে পেনশনের টাকা তুলে বাড়ি ফিরছিলেন। বাড়ি ফেরার পথে অটোরিকশায় উঠার কিছুক্ষণের মধ্যে চালকের আরেক সহযোগী উঠে ঐ অটোরিকশায়।  

এরপর কৌশলে তাদের কাছে থাকা কাগজে মোড়ানো নেশাদ্রব্য নাকের কাছে নিয়ে শুকিয়ে তাকে স্মৃতিভ্রম করেন।

এরপর তাদের কথামতো তিনি নিজেই প্রতারকদের হাতে খুলে দেন তার গলায় থাকা স্বর্ণের চেন, কানের দুল, হাতের আংটি। এসব নিয়ে দ্রুতই  সটকে পরে প্রতারকরা। আলেয়া বেগম বুঝতেই পারেননি তিনি নিজের হাতে স্বেচ্ছায় ওদের হাতে কেনো তুলে দিলেন তার এসব মূল্যবান জিনিসপত্র।

ভুক্তভোগী আলেয়া বেগমের ছেলে সাহিল তালুকদার ইরানসহ ফরিদপুর শহরের সাধারণ মানুষ বলছেন, তারা সম্প্রতি এমন বেশ কিছু ঘটনার কথা জানতে পেরেছেন। একারণে তারা বেশ শংকিত।  

অপরাধ বিশ্লেষকদের ভাষ্য অনুযায়ী, মূলত প্রতারকার স্কোপালামিন নামে ভয়ংকর মাদক ব্যবহার করে। শয়তানের শ্বাস বা ডেভিলস ব্রেথ হিসেবে পরিচিত পাওয়া এই মাদক মস্তিস্কের সিদ্ধান্ত গ্রহণের ক্ষমতা নষ্ট করে দেয়। অন্যের দেয়া আদেশকে যান্ত্রিকভাবে অনুসরণ করতে বাধ্য করা হয় স্বেচ্ছায়। তারা নিজে কিছু চিন্তা করতে পারেন না শুধু সামনের লোক যা বলবে তাই অনুসরণ রোবটের মত । ফলে দুর্বৃত্তরা লোকজনকে সর্বস্বান্ত করতে মোক্ষক অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করছে এটি।  

ফরিদপুরের পুলিশ সুপার মো: শাহজাহান জানিয়েছেন, তারা সিসি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে অপরাধীদের চিহ্নিত করতে কাজ করছেন।

news24bd.tv/আলী