প্রশাসনের হস্তক্ষেপে বাল্যবিয়ে পণ্ড, ছেলে ও মেয়ের বাবা কারাগারে
প্রশাসনের হস্তক্ষেপে বাল্যবিয়ে পণ্ড, ছেলে ও মেয়ের বাবা কারাগারে

সংগৃহীত ছবি

প্রশাসনের হস্তক্ষেপে বাল্যবিয়ে পণ্ড, ছেলে ও মেয়ের বাবা কারাগারে

 নোয়াখালী প্রতিনিধি

নোয়াখালীর চাটখিল উপজেলায় প্রশাসনের হস্তক্ষেপে বাল্যবিবাহ থেকে রক্ষা পেয়েছে নবম শ্রেণির ছাত্রী। সোমবার (১৯ সেপ্টেম্বর) উপজেলার রামনারায়ণপুর ইউনিয়নের বৈকণ্ঠপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ভ্রাম্যমাণ আদালত মেয়ের বাবা মিজানুর রহমান ও হবু বর শাহাদাত হোসেনকে কারাদণ্ড দিয়েছেন।  

চাটখিল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও ভ্রাম্যমাণ আদালতের এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মুহাম্মদ ইমরানুল হক ভূঁইয়া এ কারাদণ্ড দেন।

ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্রে জানা যায়, পারিবারিকভাবে উপজেলার মল্লিকা দীঘিরপাড় এলাকার এক ছাত্রীর সঙ্গে একই গ্রামের শাহাদাত হোসেনের বিয়ের আয়োজন করা হয়। মেয়েটি স্থানীয় একটি মাদরাসার নবম শ্রেণির ছাত্রী। সোমবার দুপুরে ছাত্রীর গ্রামের বাড়িতে এ বিয়ের আয়োজন করা হয়। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নেতৃত্বে ঘটনাস্থলে অভিযান চালানো হয়।

এতে বাল্যবিবাহের সব আয়োজন পণ্ড হয়।  

মেয়ে অপ্রাপ্ত বয়স্ক হওয়ায় তার বাবাকে ৬ মাসের এবং হবু বর শাহাদাত হোসনকে ১ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়। পরে তাদের কারাগারে পাঠানো হয়।

চাটখিল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও ভ্রাম্যমাণ আদালতের এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মুহাম্মদ ইমরানুল হক ভূঁইয়া জানান, মেয়ে অপ্রাপ্ত বয়স্ক। তার বিয়ের আয়োজন করায় মেয়ের বাবাকে বাল্যবিবাহ নিরোধ আইনে ৬ মাসের এবং চেলেকে ১ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়।  

news24bd.tv/হারুন