মামার ঘেরে মাছ চুরি করতে গিয়ে পাহারাদারকে হত্যা, ভাগনে গ্রেপ্তার
মামার ঘেরে মাছ চুরি করতে গিয়ে পাহারাদারকে হত্যা, ভাগনে গ্রেপ্তার

মামার ঘেরে মাছ চুরি করতে গিয়ে পাহারাদারকে হত্যা, ভাগনে গ্রেপ্তার

বাগেরহাট প্রতিনিধি

বাগেরহাট সদর উপজেলার বেশরগাতী গ্রামে মৎস্য ঘেরের পাহারাদার আব্দুর রাজ্জাক হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় জড়িত মূল আসামি আব্দুল্লাহ হাওলাদাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গ্রেপ্তার আব্দুল্লাহ তার মামা শওকত আলীর মাছ চুরি করতে গিয়ে ধরা পড়ার পর পাহারাদার আব্দুর রাজ্জাককে শ্বাসরোধ করে হত্যার পর লাশ খালে ফেলে দেয় বলে জানিয়েছে পুলিশ।

হত্যাকাণ্ডের এক দিনের মধ্যে মঙ্গলবার রাতে বেশরগাতী গ্রামে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। বুধবার দুপুরে বাগেরহাট মডেল থানায় প্রেসব্রিফিং করে এ তথ্য জানান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাহামুদ হাসান।

পুলিশের প্রেসব্রিফিংয়ে জানানো হয়, বাগেরহাট সদর উপজেলার বিষ্ণুপুর ইউনিয়নের বেশরগাতী গ্রামের শওকত আলীর মৎস্য ঘেরের পাহারাদার আব্দুর রাজ্জাক (৪২) প্রতিদিনের মতো সোমবার রাতেও ঘেরে পাহারা দিচ্ছিলেন। মধ্যরাতে মামা শওকত আলীর ঘেরে মাছ চুরি করতে যায় ভাগ্নে আব্দুল্লাহ হাওলাদার। এসময় মাছ চুরি করা অবস্থায় আব্দুল্লাহকে ধরে ফেলে রাজ্জাক। পরে আব্দুল্লাহকে তার মামার কাছে নিয়ে যেতে চাইলে উত্তেজিত হয়ে আব্দুর রাজ্জাককে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে লাশ কুচিবগা খালে ফেলে দেয় আব্দুল্লাহ।

এ ঘটনায় বিষ্ণুপুর ইউনিয়নের কোয়েখা গ্রামের নিহত আব্দুর রাজ্জাকের স্ত্রী জামিলা খাতুন বাদী হয়ে বাগেরহাট মডেল থানায় মামলা দায়ের করেছে। হত্যাকাণ্ডের একদিনের মধ্যে প্রযুক্তির সহায়তা নিয়ে মঙ্গলবার রাতে বেশরগাতী গ্রামে অভিযান চালিয়ে পুলিশ ঘাতক আব্দুল্লাহ হাওলাদাকে গ্রেপ্তার করে। পুলিশের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আব্দুর রাজ্জাক হত্যায় জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে আব্দুল্লাহ হাওলাদার।

news24bd.tv/FA

এই রকম আরও টপিক