ট্রফি হাতে বাফুফে ভবনে সাফজয়ী মেয়েরা
ট্রফি হাতে বাফুফে ভবনে সাফজয়ী মেয়েরা

সংগৃহীত ছবি

ট্রফি হাতে বাফুফে ভবনে সাফজয়ী মেয়েরা

অনলাইন ডেস্ক

ছাদখোলা বাসে শুভেচ্ছার বৃষ্টিতে সিক্ত বাংলাদেশ নারী দল অবশেষে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনে (বাফুফে) পৌঁছেছে। দক্ষিণ এশিয়ার শ্রেষ্ঠত্বের শিরোপা সাফ ট্রফি হাতে নিয়ে সন্ধ্যা ৭টা ৪০ মিনিটে বাফুফে ভবনে পৌঁছায় তারা।  এ সময় হিমালয় জয় করা বাঘিনীদের ফুল দিয়ে ফুল দিয়ে অভিনন্দন জানানো হয়। বাফুফে সভাপতি কাজী সালাউদ্দিন ভবনের দুই তলায় সাবিনাদের ফুলের তোড়া দিয়ে অভিনন্দন জানান।

 

বাস থেকে নামার পর বাফুফের দ্বিতীয় গেটের কাছে অনেকটা সময় লেগে যায় ভিড় কমাতেই। চরম বিশৃঙ্খলায় ফুটবলারদের বাফুফে ভবনে পৌঁছে দিতে রীতিমতো হিমশিম খেতে হয় পুলিশদের।   

এর আগে, সাফজয়ী সাবিনা-সানজিদাদের বরণ করতে আজ সকাল থেকে বিমানবন্দরের আশপাশে ভিড় জমাতে থাকেন সাধারণ মানুষ। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে যা রূপ নেয় জনস্রোতে।

হাতে হাতে পতাকা-ব্যানার ও কণ্ঠে স্লোগান। চারিদিকে উৎসবের রঙ।

দুপুর ১টা ৪৫মিনিটে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের নামেন সাবিনা-কৃষ্ণারা। তাদের সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল এমপি, যুব ও ক্রীড়া সচিব এবং মন্ত্রণালয় ও বাফুফে কর্মকর্তারা।

ছাদখোলা বাসে কোনো ক্রীড়া দলকে সংবর্ধনা দেওয়া বাংলাদেশে এটাই প্রথম। এর আগে ১৯৯৭ সালে জাতীয় ক্রিকেট দল আইসিসি ট্রফি জিতে বিশ্বকাপে খেলার সুযোগ পাওয়ার পর তাদের মানিক মিয়া অ্যাভিনিউয়ে গণসংবর্ধনা দেওয়া হয়েছিল। তবে বিমানবন্দর থেকে দল শহরে এসেছিল শীতাতপনিয়ন্ত্রিত বাসে।

বিমানবন্দর থেকে ছাদখোলা বাসটি যাত্রা শুরু করে কাকলি হয়ে। এরপর মহাখালী ফ্লাইওভার ব্যবহার করে জাহাঙ্গীর গেট, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় অফিসের পর বিজয় সরণীতে আসে। সেখান থেকে তেজগাঁও হয়ে পুনরায় ফ্লাইওভার দিয়ে মৌচাক হয়ে কাকরাইলে আসে বাসটি। কাকরাইল থেকে হাতের বাঁয়ে- ফকিরাপুল, আরামবাগ এবং মতিঝিল ও শাপলা চত্বর হয়ে বাফুফে এসে পৌঁছেছে সাফজয়ী মেয়েরা।

প্রায় ১৬ কিলোমিটারের এই পথে বীরকন্যাদের সঙ্গে ছিলেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল। ছিলো নিচ্ছিদ্র নিরাপত্তা বলয়।

news24bd.tv/সাব্বির

এই রকম আরও টপিক

সম্পর্কিত খবর