সমাবেশে নেতাকর্মীদের লাঠি নিয়ে আসার আহ্বান গয়েশ্বরের
সমাবেশে নেতাকর্মীদের লাঠি নিয়ে আসার আহ্বান গয়েশ্বরের

সংগৃহীত ছবি

সমাবেশে নেতাকর্মীদের লাঠি নিয়ে আসার আহ্বান গয়েশ্বরের

অনলাইন ডেস্ক

আত্মরক্ষার্থে নেতাকর্মীদের এখন থেকে সমাবেশে মোটা লাঠি হাতে আসার আহ্বান জানিয়েছেন বিএনপি নেতা গয়েশ্বর চন্দ্র রায়। তিনি বলেন, ‘শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি দিয়ে কিছু হবে না। সমাবেশে আসার সময় হাতে মোটা লাঠি থাকতে হবে। কাউকে আঘাত করার জন্য নয়, নিজেদের আত্মরক্ষার জন্য।

তবে আঘাত আসলে পাল্টা আঘাত করতে হবে। ’

বুধবার (২১ সেপ্টেম্বর) বিকেলে মিরপুর ৬ নং কাঁচাবাজার সংলগ্ন সড়কে দলীয় সমাবেশে এসব কথা বলেন তিনি। ঢাকা মহানগর বিএনপির মিরপুর জোনের উদ্যোগে জ্বালানি তেল, নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি এবং পুলিশের গুলিতে ভোলায় ছাত্রদল নেতা নুরে আলম, স্বেচ্ছাসেবক দলের আব্দুর রহিম ও নারায়ণগঞ্জে যুবদল নেতা শাওন হত্যার প্রতিবাদে এ সমাবেশের আয়োজন করা হয়।

গয়েশ্বর বলেন, ‘জনগণ ভোটের মাধ্যমে যাদের দায়িত্ব দেবেন, তারাই দেশ চালাবেন।

যারা জনগণের ভোটে নির্বাচিত নয়, তাদের কাছে কোনো দাবি করে লাভ নেই। আজ জনগণের একটাই দাবি, সরকারের পদত্যাগ।

‘আন্দোলনের জোয়ার শুরু হয়েছে, জনগণের ভোটের অধিকার প্রতিষ্ঠা না করে ঘরে ফিরে যাব না। মাত্র রিহার্সেল, ফাইনাল খেলায় এখনো নামিনি। আন্দোলনে যারা রক্ত দিয়েছেন, তা বৃথা যাবে না। রক্ত দিয়েই গণতন্ত্র উদ্ধার করব। ’

দেশের শতকরা পাঁচ শতাংশ পুলিশ খারাপ উল্লেখ করে সাবেক এই মন্ত্রী বলেন, ‘পুলিশ সদস্যদের বলবো, আপনাদের ভুল বোঝানো হয়। বিএনপি ক্ষমতায় আসলে আপনাদের চাকরি থাকবে না— এটা অত্যন্ত ভুল ধারণা। আমরা জানি, কোনটা ইচ্ছায় কোনটা অনিচ্ছায়। এই কাণ্ডজ্ঞান বিএনপির নেতাদের আছে। সবার তালিকা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাওয়া যাবে। আমাদের শত্রু ভাববেন না, আপনারা জনগণের পক্ষে আসেন। জনগণ আপনাদের সম্মান করবে। মনে করবেন না, জনগণ আপনাদের পোশাককে ভয় করে, তারা আপনাদের পোশাককে সম্মান করে। ’

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ‘বিএনপির নেতাকর্মীদের ওপর যারা হামলা করেছে, তাদের জনসম্মুখে হাজির করেন। তা না হলে জনগণের কাঠগড়ায় আপনাদের বিচার হবেই। পাল্টা আঘাত শুরু করলে পালানোর জায়গা পাবেন না। পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে রাজনীতি ছেড়ে দেওয়ার যে কথা বলছিলেন, সামনে আবার সেই দিন আসছে। ’

তিনি আরও বলেন, আওয়ামী লীগের অধীনে নির্বাচন হবে না। ঢাকায় নিযুক্ত ভারতের বিদায়ী রাষ্ট্রদূতের নাম উল্লেখ না করে গয়েশ্বর বলেন, যাওয়ার সময় বলে গেছেন যে, ‘আপনারা ব্যক্তির পক্ষে না, দেশের পক্ষে, জনগণের পক্ষে। ’

ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) নিয়েও কঠোর সমালোচনা করেন এই বিএনপি নেতা।

ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির আহ্বায়ক আমান উল্লাহ আমানের সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব আমিনুল হকের পরিচালনায় আরও বক্তব্য রাখেন— বিএনপি নেতা আবদুস সালাম, আবুল খায়ের ভূঁইয়া, শহিদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী, তাবিথ আউয়াল, বজলুল বাছিত আঞ্জু, নাজিম উদ্দিন আলম, আনোয়ারুজ্জামান আনোয়ার, রফিকুল আলম মজনু, মামুন হাসান, শফিকুল ইসলাম মিল্টন, রাজীব আহসন, আবদুর রাজ্জাক প্রমুখ।

news24bd.tv/মামুন