খুলনায় কিশোরী ধর্ষণ মামলায় একজনের যাবজ্জীবন
খুলনায় কিশোরী ধর্ষণ মামলায় একজনের যাবজ্জীবন

সংগৃহীত ছবি

খুলনায় কিশোরী ধর্ষণ মামলায় একজনের যাবজ্জীবন

অনলাইন ডেস্ক

খুলনায় ধর্ষণ মামলায় রফিকুল ইসলাম ঢালীর নামের এক ব্যক্তিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে ২০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ৬ মাসের সশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়।  

এছাড়া রফিকুল ইসলামকে ওই ওই কিশোরীর গর্ভে জন্ম নেওয়া শিশুর পিতা হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছেন আদালত। রায় ঘোষণার সময় আসামি আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

 

বৃহস্পতিবার (২২ সেপ্টেম্বর) খুলনা নারী ও নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৩ এর বিচারক আ. সালাম খান এ রায় ঘোষণা করেন। রায়ের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রাষ্ট্রপক্ষে আইনজীবী ফরিদ আহমেদ।

জানা যায়, আসামি রফিকুল ইসলাম খুলনা নগরীর ছোট বয়রা গোলদারপাড়া এলাকার বাসিন্দা। ২০০৯ সালে ওই কিশোরীকে একাধিকবার ধর্ষণ করেন আসামি রফিকুল।

এতে ওই কিশোরী গর্ভবতী হয়। তখন ভুক্তভোগী নারী রফিকুলকে বিয়ের জন্য চাপ দেয়।
কিন্তু আসামি ওই কিশোরীকে বিয়ে না করে বিভিন্ন ধরনের হুমকি দেন। পরে রফিকুল ইসলাম ঢালীকে আসামি করে সোনাডাঙ্গা থানায় ধর্ষণ মামলা করেন ওই কিশোরী।  

সোনাডাঙ্গা থানা পুলিশে উপপরিদর্শক মুনসুর শফিকুল ইসলাম ২০১০ সালে রফিকুলকে আসামি করে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন।  

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ফরিদ আহমেদ বলেন, ধর্ষণের ঘটনায় ওই কিশোরী সন্তান জন্ম দেয়। আদালত আসামি, ভুক্তভোগী কিশোরী ও জন্ম নেওয়া শিশুর ডিএনএ পরীক্ষার পর পরিচয় শনাক্ত করা হয়। রায়ে আসামি রফিকুল ইসলামকে কারাদণ্ডসহ ওই শিশুর পিতার স্বীকৃতি দেওয়া হয়েছে।

news24bd.tv/হারুন