কোটি টাকা নিয়ে আত্মগোপনে দুই ভাই, ছয় বছর পর গ্রেপ্তার
কোটি টাকা নিয়ে আত্মগোপনে দুই ভাই, ছয় বছর পর গ্রেপ্তার

কোটি টাকা নিয়ে আত্মগোপনে দুই ভাই, ছয় বছর পর গ্রেপ্তার

অনলাইন ডেস্ক

চট্টগ্রামের বনেদি মিষ্টির ব্যবসা ছেড়ে দুই ভাই নেমেছিলেন আবাসন খাতের ব্যবসায়। ভবন নির্মাণে বিভিন্নজনের কাছ থেকে নিয়েছিলেন কোটি টাকা ঋণ। তবে সেই টাকা আর ফেরত দেননি। এক পর্যায়ে চট্টগ্রাম থেকে পালিয়ে যান তাঁরা।

প্রায় ছয় বছর পালিয়ে থাকার সময় তাঁদের বিরুদ্ধে জারি হয় ৩২টি পরোয়ানা। অবশেষে তাঁদের গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

গত বুধবার রাত থেকে বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত গাজীপুর ও কুমিল্লায় অভিযান চালিয়ে তাঁদের গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তার দুই ভাই হলেন মাজাহার ইকবাল খান (৫০) ও তাঁর ছোট ভাই জাফর ইকবাল খান (৪০)।

বৃহস্পতিবার আদালতের মাধ্যমে তাঁদের কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

পুলিশ জানায়, নগরের সিরাজউদ্দৌলা রোডে ইকবাল সুইটস নামে একটি মিষ্টির দোকান ছিল দুই ভাইয়ের। বাবা মোহাম্মদ ইকবাল খানের মৃত্যুর পর সেই প্রতিষ্ঠান ছেড়ে তাঁরা আবাসন ব্যবসা শুরু করেন। দেওয়ানবাজারে পৈতৃক সম্পত্তিতে নির্মাণ শুরু করেন বহুতল ভবন। ১০ তলা ভবন নির্মাণের জন্য বিভিন্ন ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান ও লোকজনের কাছ থেকে নেন কোটি টাকা ঋণ। তবে ভবনটি আটতলা পর্যন্ত নির্মাণের পর তাঁরা কাজ বন্ধ করে দেন। এক পর্যায়ে পাওনাদারদের টাকা না দিয়েই তাঁরা চট্টগ্রাম ছেড়ে পালান।

পুলিশ আরও জানায়, চট্টগ্রাম ছেড়ে মাজাহার কুমিল্লার নাঙ্গলকোট থানার জোড়পুকুরিয়া গ্রামে আত্মগোপন করেন। সেখানে তিনি একটি মাদ্রাসায় শিক্ষকতা করতেন। ছোট ভাই জাফর গাজীপুরের গাছা থানা এলাকার একটি প্রতিষ্ঠানে হিসাব কর্মকর্তা হিসেবে কাজ করছিলেন।

কোতোয়ালি থানার এসআই মমিনুল হাসান বলেন, বহুতল ভবন নির্মাণের জন্য নেওয়া ঋণের টাকা শোধ করতে না পারায় ওই দুই ভাইয়ের বিরুদ্ধে একের পর এক মামলা হয়। ছয় বছর আগে চট্টগ্রাম থেকে পালানোর পর পরিবারের সঙ্গেও তাঁরা তেমন যোগাযোগ রাখতেন না। এক বছর আগে তাঁরা মায়ের জানাজাতেও আসেননি।

তিনি আরও জানান, দুই ভাইয়ের মধ্যে মাজাহারের বিরুদ্ধে ১৩টি সাজা ও ৬টি গ্রেপ্তারি পরোয়ানা রয়েছে। আর জাফরের বিরুদ্ধে রয়েছে ৭টি সাজা ও ৬টি গ্রেপ্তারি পরোয়ানা।

news24bd.tv/কামরুল