মেয়েদের পর একই লক্ষ্য ছেলেদেরও
মেয়েদের পর একই লক্ষ্য ছেলেদেরও

সংগৃহীত ছবি

নেপালকে হারাতে চায় বাংলাদেশ 

মেয়েদের পর একই লক্ষ্য ছেলেদেরও

অনলাইন ডেস্ক

নেপালকে তাদের মাঠে হারিয়েই সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপা জিতেছে বাংলাদেশ নারী দল। সাবিনা-কৃষ্ণাদের ইতিহাস গড়া সেই জয় থেকে অনুপ্রেরণা খুঁজছে বাংলাদেশের ছেলেরা। লড়াইটাও যদিও স্রেফ একটি প্রীতি ম্যাচের। তবে মেয়েদের মতো ছেলেরাও নেপালকে তাদের মাঠে হারাতে বদ্ধপরিকর।

কম্বোডিয়া থেকে গতকাল শুক্রবার নেপালের কাঠমান্ডুতে পৌঁছায় জামাল ভূঁইয়ারা। ১৫ ঘণ্টার ভ্রমণক্লান্তি দূর করে আজ ফুটবলাররা চালিয়েছে টুকটাক অনুশীলন। সেটা কাঠমান্ডু জয় করতেই। শেষবার নেপালের বিপক্ষে তাদের মাঠে বাংলাদেশ হেরেছিল ২-১ গোলে।

সেটা তিন জাতি ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনালে।

এবার প্রীতি ম্যাচ দিয়ে সেই হার ভুলতে চায় বাংলাদেশ। ফরোয়ার্ড মতিন মিয়া প্রত্যয়ী কণ্ঠে জানালেন, নেপালকে এবার হারাতে চান তাদের মাঠেই। বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) মাধ্যমে পাঠানোর ভিডিও বার্তায় মতিন বলেন, ‘(কাঠমান্ডুতে) সবশেষ দেখায় আমরা নেপালের কাছে হেরেছি। কিন্তু এবার আমরা সবাই একসঙ্গে দীর্ঘদিন কাজ করছি। অনেক অনুশীলন করেছি, কষ্ট করেছি, তাই আশা করছি এবার আমরা ওদেরকে ওদের মাঠেই হারিয়ে যাব। ’

গেল সপ্তাহে এই কাঠমান্ডুতে শিরোপা উৎসব করে গেছে বাংলাদেশের মেয়েরা। সেই জয়ে গর্বিত মতিনরা, ‘মেয়েরা চ্যাম্পিয়ন হয়েছে, এটা আসলে আমাদের জন্য গর্বের। আমাদের দেশের জন্য বড় একটা পাওয়া। আমরাও প্রথম থেকে বলে আসছি, এই দুই ম্যাচ জেতার জন্য খেলব। কম্বোডিয়ার বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে পরিকল্পনা অনুযায়ী খেলে জিততে পেরেছি।  পরের ম্যাচ নেপালের সঙ্গে, আমরাও চাই তাদের বিপক্ষে জিততে।  আমরা জয়ের জন্যই খেলব। ’

দশরথ স্টেডিয়ামে আগামী মঙ্গলবার প্রীতি ম্যাচে মুখোমুখি হবে নেপাল-বাংলাদেশ। দুদিন আগে কম্বোডিয়াকে তাদের মাঠে ১-০ গোলে হারানোর আত্মবিশ্বাস নিয়ে নেপালে পা রেখেছে বাংলাদেশ। বর্তমানে সেখানকার কন্ডিশনের সঙ্গে মানিয়ে নেওয়ার চেষ্টায় আছে দল। জানালেন কোচ হাভিয়ের কাবরেরা, ‘কাঠমান্ডুতে আজ আমরা প্রথম সেশন করেছি। আবহাওয়া ভালো, কিন্তু সমস্যা হচ্ছে ভারি বৃষ্টির কারণে মাঠের কন্ডিশন খুবই খারাপ। আমরা এর সঙ্গে মানিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করছি। রিকভারির দিকে গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে, যাতে করে খেলোয়াড়রা নেপালের বিপক্ষে লড়াইয়ের জন্য প্রস্তুত হতে পারে। ’

বাংলাদেশ কোচ হিসেবে কম্বোডিয়া ম্যাচে প্রথম জয়ের স্বাদ পেয়েছেন কাবরেরা। তবে ওই জয় মাথা থেকে সরিয়ে এখন তিনি মনোযোগী পরের ম্যাচ নিয়ে, ‘আমরা জানতাম কম্বোডিয়ার বিপক্ষে ম্যাচ কঠিন হবে। আমাদের লক্ষ্য ছিল সেখানে জেতা, সেটা করতে পেরেছি। আমি খুশি। কিন্তু এটাই যথেষ্ট নয়, এখন আমাদের নতুন লক্ষ্য নেপাল ম্যাচ। ’

news24bd.tv/সাব্বির