কুষ্টিয়ায় হত্যা মামলায় একজনের যাবজ্জীবন
কুষ্টিয়ায় হত্যা মামলায় একজনের যাবজ্জীবন

সংগৃহীত ছবি

কুষ্টিয়ায় হত্যা মামলায় একজনের যাবজ্জীবন

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি

কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা উপজেলায় জমি নিয়ে বিরোধের জেরে কুপিয়ে হত্যা মামলায় একজনকে যাবজ্জীবন ও দুজনকে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা দেওয়া হয়েছে। একই সঙ্গে অর্থদণ্ড দেওয়া হয়েছে। মঙ্গলবার (২৭ সেপ্টেম্বর) দুপুর দেড়টায় কুষ্টিয়া জেলা ও দায়রা জজ বিশেষ আদালতের বিচারক মো. আশরাফুল ইসলাম এ রায় দেন।

রায়ে কুষ্টিয়া ভেড়ামারা উপজেলার ফকিরাবাদ গ্রামের বাসিন্দা আনোয়ার হোসেনকে (৪০) যাবজ্জীবন, কনককে (৩৩) দুই বছর এবং একই এলাকার বাসিন্দা রফিককে (৪৯) চার কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ২০১০ সালের মে মাসে জমিজমা নিয়ে পূর্ব শত্রুতার জেরে ভেড়ামারা উপজেলার ফকিরাবাদ গ্রামের কৃষক রজব আলীকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম করে প্রতিপক্ষরা। এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় নিহতের ভাই ইদবার মন্ডল প্রতিপক্ষ ফারুক হোসেন ও তার দুই ছেলেসহ ৬ জনের নাম উল্লেখ করে ভেড়ামারা থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন।

মামলাটি তদন্ত শেষে ২০১০ সালের ডিসেম্বরে ৬ জনের বিরুদ্ধে হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার অভিযোগে আদালতে চার্জশীট জমা দেন তদন্তকারী কর্মকর্তা ভেড়ামারা থানার উপ-পুলিশ পরিদর্শক শওকত আলী।

 

কুষ্টিয়া জেলা ও দায়রা জজ বিশেষ আদালতের রাষ্ট্র পক্ষের কৌঁসুলি এ্যাড. রফিকুল ইসলাম লালন জানান, হত্যার ঘটনায় ৩ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হয়েছে। এদের মধ্যে একজনকে যাবজ্জীবন ও ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ৬মাসের কারাদণ্ড হয়েছে। এছাড়া রফিককে চার বছরের কারাদণ্ড ও ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ৬মাসের কারাদণ্ড এবং কনককে দুই বছরের কারাদণ্ড ও ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ৬মাসের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

একই সঙ্গে অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় তিনজনকে এই মামলা থেকে অব্যাহতি দেন আদালত।  

news24bd.tv/হারুন