পরীক্ষায় বানান ভুল করায় ছাত্রকে পিটিয়ে মারলেন শিক্ষক
পরীক্ষায় বানান ভুল করায় ছাত্রকে পিটিয়ে মারলেন শিক্ষক

সংগৃহীত ছবি

পরীক্ষায় বানান ভুল করায় ছাত্রকে পিটিয়ে মারলেন শিক্ষক

পরীক্ষায় ‌একটি বানান ভুল করায় দলিত সম্প্রদায়ের এক ছাত্রকে পিটিয়ে হত্যা করেছেন তার শিক্ষক। সোমবার চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায় ১৫ বছরের শিক্ষার্থী নিখিল দোহর। এ ঘটনায় সেখানে বিক্ষোভ শুরু হয়েছে। খবর আলজাজিরার।

এমনটাই ঘটেছে ভারতের উত্তর প্রদেশের আউরাইয়া জেলায়। পুুলিশ জানিয়েছে, অভিযুক্ত শিক্ষক পলাতক রয়েছে তবে তাকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

নিহতের বাবার করা পুলিশি অভিযোগ থেকে জানা গেছে, পরীক্ষায় ‘social’ বানান ভুল করে নিখিল। এ কারণে, তাকে রড দিয়ে আঘাত ও লাথি মেরে মাটিতে ফেলে দেন ওই শিক্ষক।

অজ্ঞান হওয়ার আগ পর্যন্ত তাকে নির্মমভাবে পেটান। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান নিখিল।

পুলিশ কর্মকর্তা মহেন্দ্র প্রতাপ সিং বার্তা সংস্থা এএফপিকে বলেছেন, ‘অভিযুক্ত পলাতক, তবে আমরা তাকে শীঘ্রই গ্রেপ্তার করব। ’

ভারতের বর্ণপ্রথায় দলিত সম্প্রদায়কে নিচুস্তরের মানুষ বলে মনে করা হয়। শতাব্দীর পর শতাব্দী ধরে কুসংস্কার ও বৈষম্যের শিকার তারা। তাদেরকে ছুলে অপবিত্র হয়ে যায় বলে মনে করা হয়।

ছেলেটির মরদেহ দাহ করার আগে শিক্ষকের গ্রেপ্তারের দাবিতে ঘটনার স্থান আউরাইয়া জেলায় বিক্ষোভ শুরু হয়েছে।

news24bd.tv/আজিজ